Home নিয়মিত খোলা-ডাক খোলাডাক

খোলাডাক

প্রিয় পত্রিকা
কিশোরকণ্ঠ। আমার কাছে একটি প্রিয় নাম। কিশোরকণ্ঠ নামটি শুনলেই মন ভরে যায় এক অনাবিল সুখে। ছড়া-কবিতা, রহস্যগল্প, কিশোর উপন্যাস, সায়েন্স ফিকশনসহ মজার সব বিষয় দিয়ে সাজানো থাকে প্রতিটি সংখ্যা। যা পড়ে মন আনন্দে নেচে ওঠে। তোমাদের গল্প বিভাগটি আমার একান্ত পছন্দের। তা ছাড়া হাসির বাকসো বিভাগটি পড়ে আমার দারুণ হাসি পায়। বলতে পারো বিভাগটি আমাকে সাধারণ জ্ঞান অর্জনে সাহায্য করে। এ ছাড়া শব্দধাঁধাও বুদ্ধি বাড়াতে সাহায্য করে। অনুশীলন বিভাগে যখন নিজের নামটি দেখতে পাই তখন মনটা আনন্দে লাফিয়ে ওঠে। আমার প্রিয় পত্রিকা কিশোরকণ্ঠ এভাবে যুগ যুগ ধরে মানুষের মননে আনন্দের স্রোতধারা বইয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ।
জোবাইদুল ইসলাম, শিক্ষার্থী, সুফিয়া নুরিয়া ফাজিল মাদ্রাসা, মিরসরাই, চট্টগ্রাম

ভালোবাসি
আমি যখন নতুন নতুন কিশোরকণ্ঠ পড়া শিখি, তখন আমার নজরে শুধু হাসির বাকসো, মজার ছড়া-কবিতা, গল্প এগুলো পড়তো। এগুলো নিয়েই কিশোরকণ্ঠকে আমার অনেক প্রিয় মনে হতো। সত্যি বলতে হাসির বাকসো আর ছড়া পড়ার জন্যই কিশোরকণ্ঠ কিনতাম। একদিন কী একটা মনে করে ভাবলাম- আমি তো কিশোরকণ্ঠে হাসির বাকসো, ছড়া, গল্প এগুলোই শুধু পড়ি, আজ অন্য কিছু পড়ে দেখি কেমন লাগে! তারপর ধীরে ধীরে সকল বিভাগ পড়তে শুরু করলাম। বাহ্! চমৎকার! আমার কাছে কিশোরকণ্ঠ আগের চেয়ে ডাবল প্রিয় হয়ে উঠলো। সত্যি সত্যি আমি কিশোরকণ্ঠকে এরপর থেকে ভালোবাসতে শুরু করলাম। আর প্রতি মাসে শুধু অপেক্ষা করতাম কখন পাবো প্রিয় কিশোরকণ্ঠ। মন থেকে বলি আমি তোমাকে ভালোবাসি কিশোরকণ্ঠ।
জাবির আহম্মেদ জিহাদ, পশ্চিম চিনাডুলী, চিনাডুলী, ইসলামপুর, জামালপুর

বেস্ট পত্রিকা
মাশাআল্লাহ প্রতি বছর বৃদ্ধি পাচ্ছে কিশোরকণ্ঠের পাঠক। যাকে বলে একেবারে হাড়েহাড়ে বৃদ্ধি। নতুন নতুন বিভাগ, গল্প, জ্ঞানসমূহের গাড়ি নিয়ে যেভাবে নিজেকে পাঠকদের সামনে উপস্থিত করে পাঠক সেটি হাতে না নিয়ে থাকতে পারে না। এজন্য পাঠকরাই বেছে নেবে তার জীবনের জন্য বেস্ট পত্রিকাটি। যা তাকে কখনো ঠকাবে না। আমি মনে করি, একজন ছাত্রের পুনর্গঠনের জন্য যা যা দরকার তা কিশোরকণ্ঠ সেটিং করে দিচ্ছে। সত্যি বলতে আমি আমার জীবনের একটা সিদ্ধান্ত কিশোরকণ্ঠকে ছাড়া নিই না। দোয়া করি কিশোরকণ্ঠ যেন প্রতিটা কিশোরকে সৎ পথে চালিত করতে পারে। (আমিন)
ইসমাঈল সাজিদ নিশান, দক্ষিণ বাকলিয়া, বাকলিয়া থানা দক্ষিণ, চট্টগ্রাম

SHARE

Leave a Reply