Home নিয়মিত খোলা-ডাক খোলা ডাক

খোলা ডাক

ধন্যবাদ
প্রত্যেক মাসে নতুন নতুন জ্ঞানের সমাহার নিয়ে শিশু-কিশোরদের মাঝে উপস্থিত হওয়ার জন্য, এত বছর ধরে শিশু-কিশোরদের জ্ঞানভাণ্ডারকে আলোকিত করার জন্য, জ্ঞানযুদ্ধে শিশু-কিশোরদের হাতকে আঁকড়ে ধরার জন্য, প্রত্যেক জ্ঞানযুদ্ধে শিশু-কিশোরদের পাশে থাকার জন্য কিশোরকণ্ঠকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। আমি কামনা করি কিশোরকণ্ঠ সারাজীবন বেঁচে থাক। কিশোরকণ্ঠ এভাবেই যেন আমাদের পাশে থাকে, আমাদের জীবনের পথ চলতে সাহায্যে করে, আমাদের জীবনের জ্ঞানযুদ্ধে জয়ী হতে সাহায্যে করে। পুরো কিশোর জীবনটা যেন কিশোরকণ্ঠের হাত ধরে পেরিয়ে যেতে পারি।
ইসমাঈল সাজিদ নিশান, কল্পলোক আবাসিক, বাকলিয়া, চট্টগ্রাম

পড়ার গুরুত্ব বোঝানোর পত্রিকা
আমরা আগে অনেক পত্রিকা পড়েছি। তবে কিশোরকণ্ঠের মতো মজাদার পত্রিকা পাইনি। কিশোরকণ্ঠ পড়লে আমরা জ্ঞানের সকল জগৎ সম্পর্কে কিছু না কিছু ধারণা পাই। কিশোরকণ্ঠ পড়ে শেষ করার পর যেন পাঠ্যবইগুলো পড়তেও অন্যরকম ইচ্ছা জাগে। এভাবে ক্রমানুসারে আমরা লেখাপড়ার প্রয়াস পাই কিশোরকণ্ঠ থেকে। তাই আমি মনে করি, একমাত্র কিশোরকণ্ঠ পত্রিকাটি হচ্ছে পড়ালেখার গুরুত্ব বোঝানোর মতো একটি পত্রিকা।
নাঈম হোসেন, আলমডাঙ্গা, চুয়াডাঙ্গা

আমাদের প্রত্যাশিত পত্রিকা
কিশোরকণ্ঠ আমাদের যথাযথ প্রত্যাশিত একটি পত্রিকা। আমরা কিশোররা এরকম একটা পত্রিকা পেয়ে সত্যিই অনেক আনন্দিত। এই বয়সে আমাদের চাওয়া সবগুলো বিষয় এখানে প্রতি মাসে দেওয়া থাকে। বিশেষ করে খেলাধুলা এরপর ছড়া কবিতাগুলো আমার খুব ভালো লাগে। বিশেষ করে এ পত্রিকার গল্পগুলো অসাধারণ। আমি এরকম একটি পত্রিকাই আশা করি। তাই আমার কাছে এটি আমার প্রত্যাশিত পত্রিকা।
খালেদ সাইফুল্লাহ, শেখেরখীল, বাঁশখালী, চট্টগ্রাম

আমার প্রিয় শিক্ষক
সবার জীবনে কেউ না কেউ প্রিয় শিক্ষকের স্থান দখল করে থাকে। কিন্তু আমার ক্ষেত্রে প্রিয় শিক্ষক কিশোরকণ্ঠ। প্রতিনিয়তই কিশোরকণ্ঠ থেকে কিছু না কিছু শিখছি। যা আমার শিক্ষকের ভূমিকা পালন করছে। প্রকৃত অর্থে কিশোরকণ্ঠ আমাকে অনেক বদলে দিয়েছে। আমার মতে, নিজের শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের লক্ষ্যে জ্ঞানের শ্রেষ্ঠ বই কিশোরকণ্ঠ। এর প্রতিটি বিভাগ নৈতিকতা শিক্ষা ও চরিত্র গঠনে সহায়ক ভূমিকা পালন করছে। যা প্রতিটি মানুষকে উন্নতির শিখরে পৌঁছে দিতে সহায়তা করে। এ জন্য মহান আল্লাহর কাছে শুকরিয়া জ্ঞাপন করছি এবং সাফল্য কামনা করছি।
আফরোজা সিকদার রাহী, ষাইটমারা, শাপলাপুর, কক্সবাজার

আমার প্রাণের বন্ধু
কিশোরকণ্ঠ আমার হৃদয়জুড়ে ভালোবাসার নাম। যেটা মন খারাপের ঔষুধ। তোমার প্রতিটি গল্প আমাকে মুগ্ধ করে তোলে। আমার প্রাণের বন্ধু হচ্ছো তুমি। তুমি আমাকে ভালো পথে ডাকার পরম বন্ধু। তোমার ভেতর থেকে আমি অনেক মহামনীষীর গল্প শুনি। কীভাবে আমি একজন সফল মানুষ হবো সেই দিকনির্দেশনা তুমি দাও। কুরআনের আলো, হাদিসের আলো, পৃথিবীর আনাচে কানাচেরÑ সব ভালো তুমি আমাদেরকে দাও। তাই তুমি আমার প্রাণের বন্ধু।
আশ্রাফুল আলম, কবিরহাট, নোয়াখালী

SHARE

Leave a Reply