Home আইটি কর্নার ‘উইন্ডোজ ১১ এসই’ -জুবায়ের চমক

‘উইন্ডোজ ১১ এসই’ -জুবায়ের চমক

আধুনিক সময়ের অন্যতম প্রধান শিক্ষা উপকরণ কম্পিউটার। আগে শুধুমাত্র উচ্চশিক্ষায় এটার ব্যবহার ছিল। কিন্তু এখন বলতে গেলে প্রাথমিক পর্যায় থেকেই শুরু হয় কম্পিউটার চালনা। তাছাড়া করোনা পরবর্তী বিশে^ অনলাইন নির্ভরতার জন্য এর ব্যবহার আবশ্যিক হয়ে গেছে। কম্পিউটার শব্দটির সাথে ওতোপ্রোতভাবে যে শব্দটি জড়িয়ে আছে তাহলো- উইন্ডোজ। কারণ, কম্পিউটারের ব্যবহার সহজ করেছে এ উইন্ডোজ। তাইতো বর্তমান বিশ্বের ৮০% কম্পিউটারে উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়। উইন্ডোজ সাধারণত নিজের সাথেই নিজে প্রতিযোগিতা করে। সময়ের সাথে সাথে চাহিদার আলোকে নিজেকে নিয়ে যায় অন্যন্য উচ্চতায়। সে ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষায়িত অপারেটিং সিস্টেমের ঘোষণা দিয়েছে মাইক্রোসফট। নাম- ‘উইন্ডোজ ১১ এসই’। আমাদের এবারের আলোচনা এ বিষয়েই-
অনলাইন দুনিয়ায় মাইক্রোসফটের অবস্থান আরও মজবুত করবে এ অপারেটিং সিস্টেম। শিক্ষার্থীদের জন্য ব্যবহৃত কম্পিউটারগুলোতেই প্রথমে উইন্ডোজ ১১ এসই ইনস্টল করতে চায় কর্র্তৃপক্ষ। এ কারণে নতুন এই লাইট ভার্সন থেকে কয়েকটি ফিচার বাদ দেওয়া হয়েছে। এখানে গরপৎড়ংড়ভঃ ঝঃড়ৎব, গঁষঃরঢ়ষব ংহধঢ় ষধুড়ঁঃং এবং ডরফমবঃং দেখা যাবে না। একই ধরনের অ্যাপ একটিই থাকবে। নিরবচ্ছিন্ন মনোযোগের জন্য অ্যাপগুলো সাধারণত ফুলস্ক্রিন মোডে চালু হবে। এছাড়া উইন্ডোজ ১১ এসই-যুক্ত ল্যাপটপে বেশ কিছু বিশেষ ফিচারও থাকছে। গরপৎড়ংড়ভঃ ঙভভরপব, ঞবধসং, ঙহবঘড়ঃব, গরহবপৎধভঃ ভড়ৎ ঊফঁপধঃরড়হ, ঋষরঢ়মৎরফ-এর মতো অ্যাপগুলি আগে থেকেই ইনস্টল করা থাকবে। এছাড়াও গরপৎড়ংড়ভঃ ঙহব উৎরাব-এ অটোমেটিক ডকুমেন্ট ব্যাক-আপের ব্যবস্থাও থাকছে। মাইক্রোসফটের এজ ব্রাউজারে ক্রোমের এক্সটেনশন ইনস্টল করা যাবে। ফলে, আরও বেশি গ্রাহক সহজেই এ ব্রাউজার ব্যবহার করতে পারবে। বেশ কিছু সফটওয়্যার সাধারণত ইন্টারনেটে যুক্ত হয়ে ব্যবহার করতে হয়। কিন্তু সব শিক্ষার্থীর বাড়িতে তো ভালো ইন্টারনেট সংযোগ না-ও থাকতে পারে। সেজন্য উইন্ডোজ ১১ এসইতে এসব সফটওয়্যার অফলাইনে চালানো যাবে। ইন্টারনেটে যুক্ত হলে উইন্ডোজ সেগুলো আপডেট করে নেবে। তাছাড়া নিরাপত্তার জন্য এ অপারেটিং সিস্টেমে চলা কম্পিউটারগুলোতে কেবল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আইটি অফিসাররা সফটওয়্যার ডাউনলোড ও ইনস্টল করতে পারবে। যেসব কম্পিউটারে ৪ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজ রয়েছে, সেসব ল্যাপটপ ও কম্পিউটারে এ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা যাবে। নতুন এই অপারেটিং সিস্টেম উইন্ডোজ ১১ এর তুলনায় অনেকটাই হাল্কা ও দ্রুতগতির।

ইতোমধ্যেই উইন্ডোজ ১১ এসই-সহ ‘সারফেস এসই’ ল্যাপটপ বাজারে এসেছে। খুব তাড়াতাড়িই ডেল, আসুস, লেনোভো, ফুজিৎসু, এ্যাসার-সহ বিভিন্ন খ্যাতনামা ব্র্যান্ড এ অপারেটিং সিস্টেমের ল্যাপটপ বাজারে নিয়ে আসবে বলে জানিয়েছে। ফলে কম দামের ল্যাপটপ বাজারে আবার নতুন জোয়ার আসতে চলেছে বলে মনে হচ্ছে। মাইক্রোসফটের নতুন সারফেস ল্যাপটপ এসইর প্রাথমিক মডেলটিতে ১১ দশমিক ৬ ইঞ্চি ডিসপ্লে ও ইনটেল সেলেরন প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। ল্যাপটপটি ৪ জিবি অথবা ৮ জিবি র‌্যাম এবং ৬৪ জিবি অথবা ১২৮ জিবি স্টোরেজ-সহ পাওয়া যাবে। এটি প্লাস্টিক বডি ও স্ট্যান্ডার্ড স্ক্রু’র সাথে এসেছে। এর বিভিন্ন পার্টসও বিক্রি করবে বলে জানিয়েছে মাইক্রোসফট। এ ল্যাপটপের ব্যাটারিতে প্রায় ১৬ ঘণ্টা কাজ করা যাবে। এর ওজন প্রায় ১.১১ কেজি। ল্যাপটপটির কানেক্টিভিটি অপশনের মধ্যে আছে- একটি ইউএসবি-এ পোর্ট, একটি ইউএসবি-সি পোর্ট, একটি ডিসি কানেক্টর এবং একটি ৩.৫ মিমি হেডফোন জ্যাক। ভিডিও কলিংয়ের জন্য এর সামনে একটি ১ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরাও আছে। এছাড়া এ ল্যাপটপে আছে স্টরিও স্পিকার। সবমিলিয়ে বলা যায়- শিক্ষার্থীদের জন্য এ এক দারুণ খবর!

SHARE

Leave a Reply