Home খেলার চমক নতুন যুগে টেস্ট ক্রিকেট । আবু আবদুল্লাহ

নতুন যুগে টেস্ট ক্রিকেট । আবু আবদুল্লাহ

নতুন যুগে টেস্ট ক্রিকেট । আবু আবদুল্লাহনতুন একটি অধ্যায় শুরু হয়েছে টেস্ট ক্রিকেটে। ক্রিকেটের সবচেয়ে অভিজাত আর পুরনো এই সংস্করণটি নতুন একটি যুগে প্রবেশ করেছে। প্রথমবারের মতো ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ চালু করেছে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। যা ইতোমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে। এ বছরের ১ আগস্ট এবারের অ্যাশেজ সিরিজের মধ্যে দিয়ে শুরু হয়েছে এই লিগ। শেষ হবে দুই বছর পর। তারপরই পাওয়া যাবে টেস্টের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন।
এতদিন আইসিসির টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ নির্ধারিত হতো র‌্যাঙ্কিংয়ের ভিত্তিতে। বছরের নির্ধারিত একটি সময়ে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থাকা দলটি পেত এই স্বীকৃতি। তাদের দেয়া হতো একটি ট্রফি ও প্রাইজমানি; কিন্তু এই ধারা পাল্টে প্রতিযোগিতামূলক খেলার ভিত্তিতে টেস্টের বিশ্বসেরা দল নির্বাচন করতে যাচ্ছে আইসিসি। লিগ পদ্ধতিতে আয়োজন করা হচ্ছে এই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ।
টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ নয়টি দল ২ বছরের এই লিগে খেলবে। দুই বছরের লিগ শেষে সেরা দুই দল নিয়ে হবে ফাইনাল। ফাইনালে জয়ীরা হবে টেস্টের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন।

কেন এই আয়োজন
টি-টোয়েন্টির জোয়ারে ক্রিকেটের দীর্ঘতম সংস্করণ টেস্টের প্রতি মানুষের আগ্রহ কমে যাচ্ছে। এমননকি ওয়ানডে ক্রিকেটও দর্শক হারাতে শুরু করেছে। সময়ের অভাব ও উত্তেজনাময় ক্রিকেট- এই দুই কারণে দর্শকদের যাবতীয় আগ্রহ এখন ছোট ফরম্যাটের ক্রিকেটের দিকে। এমন চলতে থাকলে টেস্ট ক্রিকেটের অস্তিত্ব নিয়েই প্রশ্ন উঠতে পারে। তাই টেস্টের জনপ্রিয়তা ফিরিয়ে আনতে আইসিসি নতুন এই ইভেন্ট চালু করেছে।
তা ছাড়া এক দেশের ক্রিকেটের প্রতি অন্যদেশের দর্শকদের আগ্রহও এতে তৈরি হবে। যেমন পৃথিবীর অন্য প্রান্তে অস্ট্রেলিয়া আর নিউজিল্যান্ড যদি টেস্ট ম্যাচ খেলে- তাতে বাংলাদেশের দর্শকদের আগ্রহ থাকার কথা নয়। কারণ এতে বাংলাদেশের মর্যাদার কোন বিষয় জড়িত নয়; কিন্তু এই লিগ চালু হলে সবাই সবার ম্যাচের খবর রাখবে। পয়েন্ট টেবিলে কে কার চেয়ে এগিয়ে গেল সেটির দিকে চোখ রাখতে হবে সব ক্রিকেট ভক্তকে।
যেমন বিপিএলে ঢাকা ডায়নামাইটসের সমর্থকরা ঠিকই চোখ রাখে কুমিল্লা আর রংপুরের ম্যাচের দিকে। কারণ পয়েন্ট টেবিলের লড়াই। তাই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুধু র‌্যাঙ্কিংয়ের বদলে লিগ পদ্ধতিতে পয়েন্ট টেবিলের মর্যাদা অনুযায়ী নির্ধারিত হলে তাতে সব দেশের দর্শকদের আগ্রহ বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করছে আইসিসি।

নতুন যুগে টেস্ট ক্রিকেট । আবু আবদুল্লাহযেভাবে হবে আয়োজন
টেস্ট খেলুড়ে সেরা ৯টি দল নিয়ে আগামী দুই বছরে অনুষ্ঠিত হবে এই চ্যাম্পিয়নশিপ। গত ১ আগস্ট ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের মধ্যেকার অ্যাশেজ সিরিজের প্রথম টেস্টের মাধ্যমে শুরু হয়েছে এই লিগের পথচলা। ওই টেস্ট ছিলো এই লিগের প্রথম টেস্ট। অর্থাৎ এবারের অ্যাশেজ সিরিজ তাই শুধু ইংল্যান্ড আর অস্ট্রেলিয়ার দ্বিপক্ষীয় সিরিজ নয়। এটি এখন বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ। সে মাসেই নিউজিল্যান্ড দল শ্রীলঙ্কা সফর করেছে। সেই সিরিজও এই লিগের অংশ।
এই লিগে প্রতিটি দল অন্য ৮ দলের মধ্যে যে কোন ৬ দলের সাথে ছয়টি সিরিজ খেলবে। অর্থাৎ কেউ সবগুলো দলের বিপক্ষে খেলবে না। আবার একই প্রতিপক্ষের সঙ্গে হোম ও অ্যাওয়ে সিরিজ খেলা যাবে না। ৬ দলের বিপক্ষে ৬ সিরিজের তিনটি দেশের মাটিতে, অন্য তিনটি হবে প্রতিপক্ষের মাটিতে। বাংলাদেশ খেলবে পাকিস্তান, ভারত, শ্রীলঙ্কা, নিউজিল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে।
নতুন যুগে টেস্ট ক্রিকেট । আবু আবদুল্লাহএভাবে দুই বছর টেস্ট খেলুড়ে ৯ দেশ খেলবে মোট ২৭টি টেস্ট সিরিজ। সিরিজগুলো কোনটি দুই ম্যাচের, কোনটি তিন, চার কিংবা পাঁচ ম্যাচের। এসব সিরিজে মোট ৭২টি টেস্ট ম্যাচ হবে।
প্রত্যেক সিরিজে ১২০ পয়েন্ট থাকবে। এই ১২০ পয়েন্ট ভাগ হবে সিরিজে কতটি টেস্ট হচ্ছে তার ওপর। তিনটি টেস্ট হলে প্রতি টেস্টের জন্য ৪০ পয়েন্ট করে থাকবে, দুটি টেস্ট হলে প্রতি টেস্টের পয়েন্ট ৬০। টেস্ট টাই হলে পয়েন্ট ভাগাভাগি হবে। ড্র হলে ৩:১ অনুপাতে পয়েন্ট ভাগাভাগি হবে।
অর্থাৎ কেউ প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করলে ওই সিরিজে সর্বোচ্চ ১২০ পয়েন্ট পেতে পারে। ২ বছর পর পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দুটি দল মুখোমুখি হবে ফাইনালে। সেই ফাইনালে বিজয়ীরাই বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নের মুকুট পরবে। ২ বছরের এই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ২০২১ সালের ৩১ মার্চ শেষ হবে। জুনে অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল। এরপরই শুরু হবে পরবর্তী টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। যেটির শিরোপা নির্ধারণ হবে ২০২৩ সালে।

SHARE

Leave a Reply