Home জানার আছে অনেক কিছু সেলাই মেশিন বৃত্তান্ত

সেলাই মেশিন বৃত্তান্ত

history of sewing machineখাদ্যের পরই মানুষের অন্যতম মৌলিক চাহিদাটি হলো বস্ত্র। সুন্দর পোশাকে আমরা স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। মন থাকে সতেজ। আর এ কারণে প্রাচীনকাল থেকেই মানুষ বস্ত্রশিল্পের উন্নয়নে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে আসছে। তবে শুরু থেকে এখন পর্যন্ত নিত্যনতুন পোশাক তৈরিতে যে যন্ত্রটি ব্যবহার হচ্ছে, তা হলো সেলাই কল। প্রচলিত অর্থে যাকে আমরা সেলাই মেশিন বলে থাকি। বস্ত্র ছাড়াও চামড়া, রাবার এবং এ জাতীয় দ্রব্যকে সেলাইয়ের কাজেও বিশেষ ধরনের সেলাই মেশিন ব্যবহার করা হয়। এমনকি শিল্প-কারখানায় সুতার পরিবর্তে তার দিয়ে অপেক্ষাকৃত শক্ত দ্রব্যকে সেলাইয়ের জন্যও রয়েছে উপযুক্ত সেলাই মেশিন। হাতে সেলাইয়ের পরিবর্তে যন্ত্রের সাহায্যে সেলাই প্রচলনের উদ্দেশ্যে অষ্টাদশ শতাব্দীতে বিশ্বের প্রথম শিল্প-বিপ-বের সময়েই সেলাই মেশিন উদ্ভাবন হয়। তবে এর আগেও এ যন্ত্রের ব্যবহার ছিল, সেগুলোতে উভয়দিকেই এক ঘর বাদ দিয়ে চেইনস্টিচ সৃষ্টি হতো। পরবর্তীকালের মেশিনগুলোতে কোনো ঘর বাদ ছাড়াই উভয় দিকেই সেলাই থাকে অর্থাৎ লকস্টিচ পদ্ধতি চালু হয়। ১৭৯০ সালে ব্রিটিশ আবিষ্কারক থমাস সেন্ট প্রথম সেলাই মেশিন তৈরির স্বীকৃতি লাভ করেন; কিন্তু ওই ডিজাইনের মেশিন বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহারের জন্য তৈরি হয়নি। ১৮৩০ সালে বার্থলেমি থাইমোনার নামে ফ্রান্সের এক দর্জি চেইনস্টিচের মেশিন উদ্ভাবনের স্বীকৃতি পান। ১৮৪১ সালে তিনি ৮০টি মেশিন নিয়ে সেনাবাহিনীর পোশাক তৈরির জন্য একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। কিন্তু দুঃখজনক ব্যাপার হলো, দাঙ্গায় প্রতিষ্ঠানটি ধ্বংস হলে তিনি এ কাজে আর কোনো উন্নতি ঘটাতে পারেননি। এরই মধ্যে ১৮৩৪ সালের আগেই ইলিয়াস হো এবং ওয়াল্টার হান্ট লকস্টিচ মেশিন উদ্ভাবনের কৃতিত্ব পেয়ে যান। ১৮৫৪ সালে ইলিয়াস হো’কে এ কাজের জন্য বিশেষ সংবর্ধনাও দেওয়া হয়েছিল।
১৮৫০ সালের মধ্যে বেশকিছু ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে কয়েক ধরনের সেলাই মেশিনের উদ্ভাবন ঘটে। এ সময় চার্লস মিলার বোতামঘর সেলাইয়ের উপযোগী একটি মেশিন উদ্ভাবনের স্বীকৃতি পান। ১৮৫৬ সালে সিঙ্গার, হো, হুইলার, উইলসন, গ্রোভার ও বেকার যৌথভাবে আধুনিক সেলাই মেশিন তৈরির জন্য কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেন। চলতে থাকে সেলাই কলের উন্নয়ন। বিশ্বের বহুল প্রশংসিত সিঙ্গার সোয়িং কোম্পানি গত শতাব্দীর শুরুতেই ইলেকট্রিক সেলাই মেশিনের প্রচলন করে। হস্ত বা পা-চালিত মেশিনগুলোর চেয়ে ইলেকট্রিক মেশিন দিয়ে নকশি করা, ফুল তোলা ও বিশেষ ধরনের সেলাইসহ সাধারণ কাজও সহজে এবং কম সময়ে করা যায়। বর্তমানে কম্পিউটার প্রযুক্তি নির্ভরশীল এবং স্টেপার মোটর ব্যবহার করে নানা ধরনের সেলাই কাজের উপযোগী সেলাই মেশিন তৈরি সম্ভব হয়েছে।
জে হুসাইন
SHARE

Leave a Reply