Home নিয়মিত রহস্যভেদ আসল খুনি

আসল খুনি

‘তাহলে আপনার সামনেই ঘটে ঘটনাটা?’
‘না, আসলে ব্যাপারটা ঠিক তা নয়।’ খুদে গোয়েন্দা রাসেল মাহফুজের প্রশ্নের জবাব দিলেন আওয়াল সাহেব।
‘রাসেল মাহফুজকে আরেকবার ঘটনাটা দয়া করে খুলে বলবেন?’ আওয়াল সাহেবকে অনুরোধ করলেন ইন্সপেক্টর শাকিল মাহমুদ।
‘অবশ্যই…’ বলতে শুরু করলেন আওয়াল সাহেব, আর তখনই টেপরেকর্ডারটা চালু করলো রাসেল মাহফুজ। ‘আমার ছোট ভাইয়ের মেয়ের জন্মদিন আগামী বৃহস্পতিবার। তার জন্য কেকের অর্ডার দিতে যাচ্ছিলাম দোকানে। আমিই ড্রাইভ করছিলাম গাড়িটা। গাড়ির ব্যাটারির অবস্থা ভালো নয় সন্দেহ করেছিলাম আগেই! কিন্তু সেদিনই ডাউন হয়ে যাবে ভাবিনি। ফিরে আসার সময়ই ডাউন হলো ব্যাটারি। আর ডাউন হবি তো  একেবারে মমিন সাহেবের বাড়ির সামনে। কড়া রোদে রাস্তা একদম ফাঁকা। সৌভাগ্য যে পাশেই ফোন বুথ ছিল। সেখান থেকে টেলিফোন করে ড্রাইভারকে বললাম দ্বিতীয় গাড়িটা নিয়ে ওখানে চলে আসতে। সময় কাটানোর জন্য গাড়িতে গিয়ে বসলাম। গাড়ির রেডিওটা ছেড়ে গান শুনতে লাগলাম। এমন সময় পর পর দু’টো গুলির শব্দ শুনতে পেলাম। তারপর মমনি সাহেবের বাড়ি থেকে দৌড়ে বেরিয়ে যেতে দেখলাম তার ভাইকে। আমি আর দেরি না করে দৌড়ে চলে গেলাম মমনি সাহেবের বাসার ভেতরে। দেখলাম, মেঝেতে পড়ে আছে মমিন সাহেবের গুলিবিদ্ধ প্রাণহীন দেহ। সম্ভবত তাঁর সম্পত্তির লোভেই কাজটা করেছে তাঁরই ভাই। দেশের অবস্থা যে কী হ…’
‘আসলেও দেশের অবস্থা তেমন ভালো নয়।’ আওয়াল সাহেবের কথাটা কেড়ে নিল রাসেল মাহফুজ। ইন্সপেক্টরকে বলল, ‘কি হলো ইন্সপেক্টর সাহেব! এখনও বসে আছেন যে? অ্যারেস্ট করুন আওয়াল সাহেবকে। ইনিই তো খুনি।’
পাঠকদের বলতে হবে, রাসেল মাহফুজ কিভাবে বুঝল যে আওয়াল সাহেবই খুনি।

জুন ২০১০ সংখ্যার উত্তর : মামা যেহেতেু পশ্চিম দিকে মাথা রেখে শোন, সেহেতু মাথার উপরের জানালা পশ্চিম দিকে হবে। সূর্য ওঠে পুব দিকে। তাহলে ভোরবেলায় পশ্চিম দিকের জানালার ভেতর দিয়ে সূর্যের আলো আসার কথা নয়।
লটারির মাধ্যমে পুরস্কার বিজয়ী : গোলাম কিবরিয়া, চিরিরবন্দর, দিনাজপুর।

SHARE

Leave a Reply