Home কুরআন ও হাদিসের আলো কুরআনের আলো কুরআনের আলো-কল্যাণ আসে আল্লাহর অনুগ্রহে

কুরআনের আলো-কল্যাণ আসে আল্লাহর অনুগ্রহে

“আপনার যে কল্যাণ হয়, তা হয় আল্লাহর পক্ষ থেকে, আর আপনার যে অকল্যাণ হয়, সেটা হয় আপনার নিজের কারণে। হে আল্লাহর রাসূল (সা)! আর আমি আপনাকে মানুষের জন্য পয়গামের বাহক হিসেবে পাঠিয়েছি। আর আল্লাহ তায়ালাই এর সাক্ষী হিসেবে যথেষ্ট।” (সূরা আন্নিসা, আয়াত : ৭৯)

সুপ্রিয় বন্ধুরা
আমরা সৃষ্টির সেরা জীব। সেরা জীব হিসেবে আমাদের প্রত্যেকেরই কামনা থাকে কল্যাণের পথে চলার। কল্যাণের পথে চলে আমরা সবাই সফল হতে চাই। কিন্তু কল্যাণের পথে চলার আগ্রহ থাকার পরও অপ্রত্যাশিতভাবে কখনো অকল্যাণ এসে আমাদের সাথে জড়ো হয়। কল্যাণ অকল্যাণ দুটোই মানুষের কর্মের সাথে জড়িত। কল্যাণ আসে আল্লাহর পক্ষ থেকে, আর অকল্যাণ বান্দাহর নিজ হাতে কামাই করা। কোনটি কল্যাণ আর কোনটি অকল্যাণ তা বিচার করার ক্ষমতা আল্লাহ তায়ালা মানুষকে দিয়েছেন। বান্দাহ ভালো কাজ করুক, কল্যাণের পথে চলুক এটাই তিনি চান। বিপদাপদ যদিও আল্লাহরই সৃষ্টি, কিন্তু তার কারণ হয় মানুষের কৃত অসৎ কর্মে। মানুষ যে সমস্ত নেয়ামত লাভ করে তা তাদের প্রাপ্য নয়, বরং একান্ত আল্লাহ তাআলার অনুগ্রহেই প্রাপ্ত হয়। পার্থিব জীবনে আমরা যে কল্যাণেরই অংশীদার হই না কেন, তা কি আল্লাহর অনুগ্রহ ছাড়া চলে? নবী রাসূল থেকে শুরু করে একজন সাধারণ মানুষ পর্যন্ত সবাইকে আল্লাহর অনুগ্রহ নিয়ে চলতে হয়। যেমন এ ব্যাপারে হাদিসে এসেছেÑ মহানবী (সা) নিজেই ঘোষণা দিয়েছেন, “আল্লাহ তাআলার রহমত ব্যতীত কোন একটি লোকও জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবে না।’’ বলা হলো, আপনিও কি যেতে পারবেন না? তিনি বললেন, “না আমিও না।” সুতরাং এর মাধ্যমে বোঝা যায় আমরা রাসূলের উম্মত হয়েও আল্লাহর অনুগ্রহ ছাড়া জান্নাত প্রাপ্তির আশা করতে পারি না।

জান্নাত প্রাপ্তির আশা করতে হলে আমাদেরকে আল্লাহর দেয়া বিধান অনুযায়ী চলতে হবে। সব ধরনের গুণাহ থেকে বিরত থাকার চেষ্টা করতে হবে। বান্দাহর ওপর লঘু কিংবা গুরু যে বিপদই আসে না কেন, তা সবই তার পাপের কারণে হয়ে থাকে। জলে কিংবা স্থলে যত বিপর্যয় আসে সবই মানুষের হাতের কামাই করা। বিপর্যয়, দুর্ভিক্ষ, মহামারী, অগ্নিকাণ্ড, পানিতে নিমজ্জিত হওয়া সবই বান্দাহর পাপের ফলে হয়। বান্দার সকল গুণাহের প্রতিফল যদি দেয়া হতো, তবে দুনিয়ায় টিকে থাকা অসম্ভব ছিল। আল্লাহ তো ক্ষমাশীল, তিনি দয়ালু। বান্দাহর অনেক গুণাহ তো আল্লাহ ক্ষমাই করে দেন। আল্লাহর ক্ষমা ছাড়া দুনিয়া কিংবা আখিরাতে আমাদের কোথাও কি পার পাওয়া সম্ভব?

প্রিয় বন্ধুরা,
এসো আমরা কল্যাণের পথে চলি, যাতে আল্লাহর অনুগ্রহ লাভ করা যায়।

গ্রন্থনায় : আবদুল কুদ্দুস মাখন

SHARE

3 COMMENTS

  1. Assala-Mu-Alai-kum.
    Al-HamduLillah.
    apnar ei LEKA ta pore valo Laglo.
    apnar ei lika, Amar Facebook Profile e Share korlam.
    and 1ta NOTE o dilam.
    May Allah Bless you……!

Leave a Reply to md aowlad hossain sayed Cancel reply