Home জানার আছে অনেক কিছু সংবাদপত্রে যেভাবে সংবাদ এলো

সংবাদপত্রে যেভাবে সংবাদ এলো

১৯৬৯ সালের আগে মুদ্রণযন্ত্রে প্রকাশিত খবর ছিল কোনো কোনো দেশের মানুষের কাছে হাস্যকর ব্যাপারমাত্র। ১৯৬৯ সালে মরক্কোতে চাঁদে মানুষ পৌঁছানোর খবরটি সে দেশের ৫৬ ভাগ মানুষই প্রথমে বিশ্বাস করতে চাননি। সংবাদপত্র মূলত বিংশ শতাব্দীতে এসে বিস্তার লাভ করলেও খবরের কাগজ প্রথম প্রকাশিত হয় পঞ্চম শতাব্দীতে। রোমানরা ইতালিয়ান পেনিনসুলা থেকে খবর বহন করে আনত। জুলিয়াস সিজারের আমলেও প্রতিদিন প্রকাশিত হতো একটি বুলেটিন। সপ্তদশ শতাব্দীতে চীনারাই প্রথম গেজেট বের করে। ১৫৪৯ সালে থমাস রেনাল্ডো নামে এক ইংরেজ প্রথম ছাপাইকৃত কাগজ বের করলেও যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম সংবাদপত্র প্রকাশিত হয় ১৬৯০ সালে বেঞ্জামিন হ্যারিসের হাত ধরে। ইংল্যান্ডে সংবাদপত্রের ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্র্তন আসে মূলত সপ্তদশ শতাব্দীর দিকে। তখন বেশিরভাগ খবরই ছিল কোনো বিশেষ গোষ্ঠী বা গোত্রের। ১৭০২ সালের আগে প্রতিদিন আবার সংবাদপত্র ছাপাও হতো না। তখন সাপ্তাহিক বা মাসিক হিসেবেই কাগজ প্রকাশিত হতো। সংবাদপত্রগুলোও ছিল সব ধরনের খবরে ভরপুর। ১৭৭৬ সালের দিকে লন্ডনে মোট সংবাদপত্র ছিল ৫৩টি। ১৭৮৫ সালে জন ওয়ালার ‘দ্য লন্ডন টাইমস’ প্রকাশ করলে সারাবিশ্বে হৈচৈ পড়ে যায়। ঊনবিংশ শতাব্দীর মাঝামাঝি এ পত্রিকাটির সার্র্র্কুলেশন দাঁড়ায় ৫০ হাজার। ১৭২৫ সালে উইলিয়াম ব্র্যাডফোর্র্ড বের করেন নিউইয়র্র্ক গেজেট। পেনি প্রেস আসার পর সংবাদপত্র জনগণের কাছে বেশ গ্রহণযোগ্যতা পায়। ১৮৩৩ সালে নিউইয়র্র্ক সান ডেইলি নিউজপেপার হিসেবে বাজারে আসে। ১৮৪১ সালে হরেস গ্রিলে বের করেন দ্য নিউইয়র্র্ক ট্রাইবুন। ১৯১৯ সালে শিকাগোর তিনটি প্রকাশনা বের করে দ্য লেটার পত্রিকাটি। যুক্তরাষ্ট্রের শহরগুলোতে দ্য ডেইলি নিউজ অন্যতম নাম করা একটি পত্রিকা। ১৮৪৮ সালে ৬টি নিউইয়র্র্ক পেপার নিয়ে গড়ে ওঠে দ্য অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস। ইউনাইটেড নিউজ এজেন্সি নামে আমেরিকার আরেকটি প্রখ্যাত সংবাদ সংস্থা প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯০৭ সালে। বর্র্তমানে আমেরিকায় প্রতিদিন সংবাদপত্রের সার্র্র্কুলেশন প্রায় ৬২ মিলিয়ন। এর মধ্যে ১৯১২ সালে বের হওয়া রাসান প্রাভদার সার্র্র্কুলেশন দৈনিক ১০ মিলিয়ন কপি আর ইজকেসটিয়ার দৈনিক ৮ মিলিয়ন। জাপানের ডেইলি আসাহি শিমবুনের প্রচার সংখ্যা দৈনিক ৭ মিলিয়ন কপি। ইংল্যান্ডের সর্র্ববৃহৎ পত্রিকা দ্য লন্ডন ডেইলি মিররের সার্র্র্কুলেশন দৈনিক চার মিলিয়ন কপি। দ্য ডেইলি সান ও ডেইলি এক্সপ্রেস ছাপা হয় তিন মিলিয়ন কপি। ইভিনিং নিউজও বিক্রি হয় দৈনিক পাঁচ লাখ কপি। নিউইয়র্র্ক ডেইলি নিউজের পর ‘দ্য লস অ্যাঞ্জেলস টাইমস’ বিশ্বের অন্যতম সেরা পত্রিকা। বর্র্তমানে সুইডিশরা সবচেয়ে বেশি পত্রিকা পড়ে থাকে। এমনকি আমেরিকানরাও এদের ছাড়াতে পারেনি। বাংলাদেশ ও ভারতেও প্রতিদিন প্রকাশিত হয় অসংখ্য সংবাদপত্র। দৈনিক কাগজের পাশাপাশি সাপ্তাহিক, মাসিক কাগজও প্রকাশিত হয়।

লিখেছেন: জে হুসাইন

SHARE

Leave a Reply