Home কুরআন ও হাদিসের আলো হাদীসের আলো হাদিসের আলো

হাদিসের আলো

সবুজ ঈদ
ঈদ মানেই এক সবুজ সকাল।
আর সবুজ মানেই তো সজীবতা। ঈদের দিন ফজর সালাত আদায় করে বাসায় ফিরতে ফিরতে ওয়াফির মাথায় এমনই এক ভাবনা ঢেউ তুলল। তার চোখের সামনেই গাছের সবুজ পাতাগুলো দুলছে। খুব ভালোভাবে তাকিয়ে সে অনুভব করলো- সবুজ রংটাও বড় বিচিত্র। কোনোটা হালকা, কোনোটা গাঢ়। কোনোটা আবার এ দুয়ের মাঝামাঝি।এক গাছের সবুজের সাথে অন্য গাছের সবুজ কখনোই মিলে যায় না। মহান আল্লাহর রংতুলির টান কী নিখুঁত! সুবহানাল্লাহ!
সবুজ নিয়ে এত ভাবনা কেন ওয়াফির? তার কারণও আছে। সবুজ রং তার ভীষণ প্রিয়। বাইরে বেরোলেই তার চোখ সবুজের মায়া খুঁজে ফেরে। যেখানে সবুজ নেই, সেখানে সে যেন প্রাণ খুুঁজে পায় না। এ কারণে শহরের চেয়ে গ্রামটাই তার বেশি পছন্দের। তার পোশাকের প্রিয় রংও সবুজ। সে জেনেছে, রাসূল সা.সবুজ রং ভালোবাসতেন। তাই সে মনে করে, সবুজের প্রতি তার এ ভালোবাসা, রাসূলের প্রতি ভালোবাসারই অংশ।
প্রতি ঈদের মতো, এবারও সে গাঢ় সবুজ রঙের একটি জামা কিনেছে। অনেক সুন্দর। এ কারণেই হয়তো তার কাছে ঈদের রং সবুজ!
সবুজ নিয়ে ভাবতে ভাবতেই তার মনে পড়লো মহানবী সা.-এর একটি হাদিসের কথা। অনেকদিন আগে সে পড়েছিল। হাদিসের মধ্যে ‘সবুজ’ শব্দটি দেখে সে তখন আগ্রহভরে তা মুখস্থই করে ফেলেছিল। প্রিয়নবী সা.বলেছেন- “যে মুসলিম কাপড়হীন কোনো মুসলিমকে কাপড় পরাবে, আল্লাহ তাকে জান্নাতের সবুজ কাপড় পরাবেন। ক্ষুধার্তকে খাবার খাওয়ালে আল্লাহ তাকে জান্নাতের ফল খাওয়াবেন। আর পিপাসার্ত কাউকে পানি পান করালে আল্লাহ তাকে মোহর করা বোতল থেকে পানি পান করাবেন।” (আবু দাউদ, তিরমিজি)
ওয়াফি উঁচু আওয়াজে বলে উঠলো, আলহামদুলিল্লাহ! যেন সঠিক সময়েই হাদিসটি মনে পড়েছে তার। তাই মহান আল্লাহকে ধন্যবাদ না জানিয়ে কি আর থাকা যায়?
ওয়াফি ভাবলো, তার ঈদের জামাটা তো সবুজই। আচ্ছা, জান্নাতের সবুজ পোশাক কি এর চেয়েও উত্তম নয়? অবশ্যই। তাহলে এ জামাটাই সে দান করে দেবে তার বয়সী এমন কাউকে, যার কোনো ঈদের পোশাক নেই। আর বিনিময়ে আল্লাহ তাকে পরাবেন এমন পোশাক, যা কখনোই পুরনো হবে না। মলিন হবে না। থাকবে উজ্জ্বল, চির সবুজ।
এক দৌড়ে মায়ের কাছে গিয়ে সবকিছু খুলে বললো ওয়াফি। মা-ও ভীষণ খুশি হলেন। বুকে জড়িয়ে তার সবুজ ছেলেটার মন ভরিয়ে দিলেন সবুজ আদরে।
বিলাল হোসাইন নূরী

SHARE

Leave a Reply