Home ছড়া-কবিতা কবিতা কিশোরকণ্ঠ জাতীয় রং-তুলি প্রতিযোগিতা ২০২০-এর পুরস্কার প্রদান

কিশোরকণ্ঠ জাতীয় রং-তুলি প্রতিযোগিতা ২০২০-এর পুরস্কার প্রদান

সর্বাধিক প্রচারিত শিশু-কিশোর মাসিক নতুন কিশোরকণ্ঠ আয়োজিত ‘কিশোরকণ্ঠ জাতীয় রং-তুলি প্রতিযোগিতা ২০২০’-এর পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। রাজধানীর এক মিলনায়তনে বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজয়ীদের পুরস্কৃত করা হয়।

দুটি গ্রুপে কিশোরকণ্ঠ জাতীয় রং-তুলি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রচুর সংখ্যক প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করে। পূর্বঘোষণা অনুযায়ী প্রথম পুরস্কার : ১২,০০০/- (বারো হাজার টাকা), দ্বিতীয় পুরস্কার : ১০,০০০/- (দশ হাজার টাকা), তৃতীয় পুরস্কার : ৮০০০/- (আট হাজার টাকা), চতুর্থ পুরস্কার : ৭০০০/- (সাত হাজার টাকা) ও পঞ্চম পুরস্কার : ৫০০০/- (পাঁচ হাজার টাকা) প্রদান করা হয়। এছাড়াও প্রত্যেকের হাতে সনদপত্র ও ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়।

কিশোরকণ্ঠের সম্পাদক বিশিষ্ট কবি মোশাররফ হোসেন খানের সভাপতিত্বে এবং সহকারী সম্পাদক শাহীদুল হাসান তারেক-এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কিশোরকণ্ঠ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জনাব সালাহউদ্দিন আইয়ুবী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কিশোরকণ্ঠের শিল্প নির্দেশক খ্যাতিমান শিল্পী হামিদুল ইসলাম এবং বাংলাদেশ চারুশিল্পী পরিষদের সভাপতি, বিশিষ্ট শিল্পী, ক্যালিগ্রাফার ও কার্টুনিস্ট ইব্রাহিম মণ্ডল। অনুষ্ঠানের শুরুতে নির্বাহী সম্পাদক মঞ্জুরুল ইসলাম উদ্বোধনী বক্তব্য প্রদান করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জনাব সালাহউদ্দিন আইয়ুবী বলেন- “একজন সন্তান গড়ে ওঠার পিছনে বাবা-মায়ের অবদান অনস্বীকার্য। সন্তানের চিন্তা ও প্রতিভাকে মূল্যায়ন করেই তাদেরকে গড়ে তোলার চেষ্টা করা উচিত। বাংলাদেশে শিক্ষিত মানুষের অভাব নেই, কিন্তু সৎ ও আদর্শবান মানুষের অভাব সর্বত্র। কিশোরকণ্ঠ শুদ্ধ সাহিত্য চর্চার মাধ্যমে শিশু-কিশোরদের আদর্শ মানুষ হতে উদ্বুদ্ধ করে, বিভিন্ন প্রতিযোগিতার আয়োজন করে তাদের প্রতিভাকে মূল্যায়ন ও উৎসাহিত করে আসছে। জাতীয় রং-তুলি প্রতিযোগিতা-২০২০ এমনই একটি উদ্যোগের অংশবিশেষ।
তিনি রং-তুলি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী এবং বিজয়ী সকলকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়ে উপস্থিত পুরস্কারপ্রাপ্তদের উদ্দেশ্য করে বলেন- “রং-তুলির আঁচড়ে শুধু কাগজ রাঙালে হবে না, মহান স্রষ্টার রঙ হৃদয়ে ধারণ করে পুরো পৃথিবী আলোকিত করার প্রত্যয় নিয়ে নিজেকে তৈরি করতে হবে।”
সভাপতির বক্তব্যে কিশোরকণ্ঠের সম্পাদক কবি মোশাররফ হোসেন খান বলেন, ‘কিশোরকণ্ঠ পড়বো জীবনটাকে গড়বো’- এই স্লোগানকে সামনে রেখে ১৯৮৪ সাল থেকে প্রকাশিত হয়ে আসছে বাংলাদেশের অসংখ্য শিশু-কিশোরের প্রিয় মাসিক নতুন কিশোরকণ্ঠ। কিশোরকণ্ঠ পত্রিকা একজন ছাত্রকে পড়ালেখার পাশাপাশি নৈতিক শিক্ষায় উৎসাহিত করে। আজকের শিশু-কিশোরদের আগামীর বাংলাদেশের জন্য সৎ, দক্ষ ও দেশপ্রেমিক নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে এক সাহসী ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে কিশোরকণ্ঠ। একই সাথে বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে জ্ঞানের রাজ্যে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন ও আদর্শ নাগরিক তৈরি করার লক্ষ্যে এই পত্রিকা বিভিন্ন প্রতিযোগিতামূলক কার্যক্রমের আয়োজন করে থাকে। কিশোরকণ্ঠ জাতীয় রং-তুলি প্রতিযোগিতা তার মধ্যে অন্যতম। শিশু-কিশোরদের সুন্দর ও যোগ্য করে তুলতে মাসিক নতুন কিশোরকণ্ঠের সকল উদ্যোগ যেন সার্বিকভাবে সফল হয় সেই কামনা করছি মহান আল্লাহর দরবারে।”
অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন কিশোরকণ্ঠ ফাউন্ডেশনের পরিচালনা পরিষদের সদস্য মারুফুল ইসলাম, কিশোরকণ্ঠের সহকারী সম্পাদক ওয়াহিদ জামান, সাবেক সহকারী সম্পাদক মমিনুল করিম, আবু তালেব, বেলাল হোসাইন প্রমুখ।

পুরস্কার বিজয়ী যারা-
ক-বিভাগ : ১ম থেকে ৫ম শ্রেণি
১ম স্থান : রাজদীপ ভূঁঞা, জয়নুল আবেদিন মেমোরিয়াল একাডেমি, চতুর্থ শ্রেণি, নোয়াখালী।
২য় স্থান : হামিদ আল মুত্তাকী, পঞ্চম শ্রেণি, ইস্ট পয়েন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, দনিয়া, ঢাকা।
৩য় স্থান : সামি আল জাবের, পঞ্চম শ্রেণি, ইবনে তাইমিয়া স্কুল এন্ড কলেজ, কুমিল্লা।
৪র্থ স্থান : তাসফিয়া নুদরাত সুপ্তি, পঞ্চম শ্রেণি, ব্রাইট স্কুল এন্ড কলেজ, কদমতলী, ঢাকা।
৫ম স্থান : সামিহা জামান, প্রথম শ্রেণি, মানারাত ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজ, ঢাকা।

খ-বিভাগ : ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণি
১ম স্থান : শায়লা বিনতে বাশার, ষষ্ঠ শ্রেণি, নবাব ফয়জুন্নেছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কুমিল্লা।
২য় স্থান : পূর্ণতা সাহা, দশম শ্রেণি, ডা. খাস্তগীর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, চট্টগ্রাম।
৩য় স্থান : মোহাম্মাদ শিহাবউদ্দিন সিয়াম, দশম শ্রেণি, চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুল, চট্টগ্রাম।
৪র্থ স্থান : ইরিনা ইফফাত পূর্বা, দশম শ্রেণি, ব্লু বার্ড স্কুল এন্ড কলেজ, সিলেট।
৫ম স্থান : নাফিস আরাফাত, নবম শ্রেণি, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন পাবলিক স্কুল ও কলেজ, বগুড়া।

SHARE

Leave a Reply