Home আইটি কর্নার বাংলা উইকিপিডিয়া লক্ষ নিবন্ধের অনলাইন আধার -তৌহিদ সালেহ

বাংলা উইকিপিডিয়া লক্ষ নিবন্ধের অনলাইন আধার -তৌহিদ সালেহ

নির্ভরযোগ্য তথ্যভাণ্ডার হিসেবে উইকিপিডিয়া সারা দুনিয়ায় সমাদৃত। যেকোনো তথ্যের জন্য মানুষ সবার আগে এখানেই যায়। সম্প্রতি অনলাইনের বৃহত্তম বিশ্বকোষ উইকিপিডিয়ার বাংলা সংস্করণ বাংলা উইকিপিডিয়া এক লাখ নিবন্ধের মাইলফলক অতিক্রম করেছে। ২০০৪ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করার প্রায় ১৬ বছরের মাথায় এ অর্জন করল বাংলা উইকিপিডিয়া। মার্কিন ইন্টারনেট উদ্যোক্তা জিমি ওয়েলস বিনামূল্যে সকলের জন্য তথ্য নিশ্চিত করার লক্ষ্যে একটি অনলাইন জ্ঞানভাণ্ডার হিসেবে ২০০১ সালে উইকিপিডিয়া প্রতিষ্ঠা করেন। ল্যারি স্যাঙ্গার এর নামকরণ করেন। শুরুর মূলমন্ত্র ছিল, ‘ভাবুনতো এমন এক পৃথিবীর কথা যেখানে সমস্ত জ্ঞানে সব মানুষের থাকবে অবাধ প্রবেশাধিকার। এটিই আমাদের প্রতিশ্রুতি।’ প্রথমে ইংরেজি সংস্করণ দিয়ে যাত্রা শুরু হলেও ধীরে ধীরে অন্যান্য ভাষায়ও উন্মুক্ত জ্ঞানের এ মাধ্যম চালু হয়। ২০০৪ সালে বাংলাসহ আরও প্রায় ৫০টি ভাষা এতে যুক্ত হয়। যে কোনো বিষয় সম্পর্কে তথ্য জানার জনপ্রিয় এই ওয়েবসাইটটি বর্তমানে প্রায় ৩১০টিরও অধিক ভাষায় বিদ্যমান রয়েছে।

প্রতি মাসে বিশ্বব্যাপী আড়াই কোটিরও বেশি মানুষ বাংলা উইকিপিডিয়া পড়ে। গড়ে হাজারের বেশি স্বেচ্ছাসেবক প্রতি মাসে এখানে অবদান রাখে। জীবনী, বিজ্ঞান, চলচ্চিত্র, ইতিহাসসহ জ্ঞান-বিজ্ঞানের সকল শাখা সম্পর্কেই তথ্য রয়েছে এখানে। উইকিপিডিয়ায় প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই বিশ্বব্যাপী স্বেচ্ছাসেবকরা অবদান রাখতে শুরু করে। কিছু সহজ নীতিমালা মেনে যে কেউ অবদান রাখতে পারে এই বিশ্বকোষে। উইকিপিডিয়ায় কোনো বিষয়ের ওপর লেখা একটি নিবন্ধ একাধিক লেখক মিলে সম্পূর্ণ করে। বর্তমানে বাংলা উইকিপিডিয়ায় গড়ে প্রতি মাসে প্রায় ১৫০০-এর অধিক নতুন নিবন্ধ তৈরি করে এই স্বেচ্ছাসেবকরা। ২০০৪ সালে যাত্রা শুরুর প্রায় ১৩ বছরের মাথায় ২০১৭ সালে অর্ধলক্ষ নিবন্ধ অর্জন করে বাংলা উইকিপিডিয়া। এর তিন বছরের মাথায় এক লাখ নিবন্ধের মাইলফলক প্রমাণ করে বাংলা উইকিপিডিয়ায় নতুনদের অংশগ্রহণ ক্রমবর্ধমান।

উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশন নামে যুক্তরাষ্ট্রের একটি অলাভজনক সংস্থা বিশ্বব্যাপী উইকিপিডিয়ার তত্ত্বাবধান করে থাকে। বাংলাদেশে উইকিপিডিয়া নিয়ে কাজ করছে ‘উইকিমিডিয়া বাংলাদেশ’, যারা উইকিপিডিয়ার শিক্ষামূলক কাজ প্রচার, প্রসার ও এ সম্পর্কে সকলকে জানাতে দেশব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা, নিবন্ধ প্রতিযোগিতা, আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা এবং সম্মেলনসহ বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে। লক্ষ নিবন্ধের মাইলফলক অর্জনকে ত্বরান্বিত করতে গত বছরের আগস্টে উইকিমিডিয়া বাংলাদেশ ‘লক্ষ্য এবার লক্ষ’ নামে একটি নিবন্ধ প্রতিযোগিতার ক্যাম্পেইন শুরু করে। এ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে আবেদনকারীগণ ইতিহাস, ভূগোল, বিজ্ঞান, চলচ্চিত্র ও খেলাধুলা বিষয়ক এক হাজার ৬ শ’র বেশি নিবন্ধ তৈরি করেছে। সুতরাং বলাই যায়- বাংলা ভাষাভাষীদের অনলাইনে জ্ঞান আহরণের সবচেয়ে বড়ো মাধ্যম এটি।

SHARE

Leave a Reply