Home তোমাদের কবিতা ফেসবুক রুম লাইভ ব্রডকাস্টিং ফিচার -শরীফ তাজওয়ার

ফেসবুক রুম লাইভ ব্রডকাস্টিং ফিচার -শরীফ তাজওয়ার

ফেসবুক লাইভ প্রোগ্রাম আধুনিক বিশ্বের এক প্রয়োজনীয় অনুষঙ্গ এখন। করোনাকালে সেটা আরও জনপ্রিয় হয়েছে। বলা যায় এটা ছাড়া এখন প্রোগ্রাম করার অন্য কোনো ভালো ব্যবস্থা নেই। তবে ভিন্ন ভিন্ন স্থান থেকে একই লাইভে থাকার নিজস্ব কোনো ব্যবস্থাপনা ছিল না ফেসবুকের। অন্য একটা ব্রডকাস্টিং মিডিয়ার সহযোগিতায় সমন্বয় করতে হতো। তবে এবার সব ফেসবুক ব্যবহারকারীদের জন্য উন্মুক্ত হলো ফেসবুক রুম। এই রুম ফিচারের মাধ্যমে কোন সময়সীমা ছাড়াই ৫০ জন পর্যন্ত একসাথে ভিডিও কনফারেন্স করতে পারবেন। ফেসবুকের যোগ করা নতুন এই ফিচার অনেকটা লাইভ ভিডিও সম্প্রচারের মতো। যার কনফারেন্স মেসেঞ্জার জুমের অনুকরণে তৈরি করা।
এই ফিচারের মাধ্যমে কেউ ফেসবুক ব্যবহার না করলেও ইনভাইট লিঙ্ক ব্যবহার করে ওয়েব পেইজের মাধ্যমে মেসেঞ্জার রুমের ভিডিও কলিংয়ে যোগ দিতে পারবে। করোনাভাইরাসের মহামারীতে পুরো বিশ্ব লকডাউনে যাওয়ায় ভিডিও কনফারেন্স চাহিদা বাড়ে। ব্যাপকভাবে ভিডিও কলিং ফিচার ব্যবহার করছে মানুষ। সেই সুযোগকে কাজে লাগাতে ফেসবুকের এই “রুম” ফিচার। অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারকারীরা গুগলের প্লে স্টোর থেকে মেসেঞ্জার অ্যাপটি আপডেট করে নিয়ে এই ফিচার ব্যবহার করতে পারবে। শুধু অ্যান্ড্রয়েডই নয়, উইন্ডোজ, আইওএস বা ম্যাকওএস ব্যবহারকারীরাও ভিডিও কনফারেন্সিং ফিচার ব্যবহার করতে পারবে। এ জন্য সব ব্যবহারকারীকে তাদের মেসেঞ্জার অ্যাপটি আপডেট করতে হবে।
ফেসবুকের সম্প্রতি উন্মুক্ত করা ভিডিও কনফারেন্সিং টুল মেসেঞ্জার রুমসে যুক্ত হয়েছে লাইভ ব্রডকাস্টিং ফিচার। এ ফিচার ব্যবহার করে ব্যবহারকারী ৫০ অংশগ্রহণকারীকে নিয়ে চালানো ভিডিও কল লাইভ স্ট্রিমিং বা সরাসরি সম্প্রচার করতে পারবে। এতে ফেসবুক লাইভ সুবিধাটি যুক্ত করা যাবে। ফেসবুক এক প্রেস বিবৃতিতে বলেছে, মেসেঞ্জার রুমস ও ফেসবুক লাইভ একত্রে এনে নতুন পদ্ধতিতে পরস্পরকে যুক্ত করার ও তারা দূরে থাকলেও কনটেন্ট তৈরি করার সুবিধা আনা হচ্ছে। ফিচারটি বেশ কয়েকটি দেশে ফেসবুক ও মেসেঞ্জার ওয়েবে পাওয়া যাবে। যেসব দেশে মেসেঞ্জার রুমস সেবাটি চালু করা হয়েছে, সেখানে শিগগিরই মেসেঞ্জার মোবাইল ও মেসেঞ্জার ডেস্কটপ অ্যাপে পাওয়া যাবে।
রুমস সৃষ্টিকারী তাঁর রুমসের কার্যক্রম প্রোফাইল, পেজ বা গ্রুপে সম্প্রচার করতে পারবে। চাইলে মানুষকে আমন্ত্রণ জানাতেও পারবে। লাইভ ব্রডকাস্ট নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে রুমস সৃষ্টিকারী। এ ছাড়া ব্রডকাস্টিংয়ে অংশগ্রহণকারীকে যুক্ত করা বা বাদ দেওয়ার ক্ষমতাও রুমস সৃষ্টিকারীর হাতে থাকবে। সরাসরি সম্প্রচারের সময় রুমস লক বা আনলক করাও যাবে। লাইভ ব্রডকাস্টের সময় রুমসে অংশগ্রহণে একটি নোটিফিকেশন পাবে অংশগ্রহণে ইচ্ছুক ব্যক্তিরা। তবে এতে যুক্ত হবে কি না, তা ঠিক করতে পারবে সে। চাইলে যেকোনো সময় লাইভ না দেখে চলে যেতেও পারবে। যখন রুমস সৃষ্টিকারী লাইভ শুরু করবে, তখন সম্প্রচার ফেসবুকে চলতে থাকবে এবং রুমসের বাইরে থাকা লোকজন রুমসে কী হচ্ছে তা দেখতে পাবে।

SHARE

Leave a Reply