Home তোমাদের কবিতা হরিণ শাবক ও ইলিশের বন্ধুত্ব শ্যামলী বিনতে আমজাদ

হরিণ শাবক ও ইলিশের বন্ধুত্ব শ্যামলী বিনতে আমজাদ

বনের ভেতর যেই নদীটা সাপের মত চলে
সেই নদীটার একটা ইলিশ বড্ড কথা বলে,
নরম বায়ুর বন্ধু হতে হরিণ শাবক রোজ
গা ঘেঁষানো সবুজ ক্ষেতে ঘাস করতো ভোজ।
হঠাৎ করেই বাচাল ইলিশ হরিণছাকে ডেকে
বলে আমার বন্ধু হবি? দেবোই ছবি এঁকে।
কোমল মনে হরিণ ছানা হয়ে গেল রাজি,
ঠিক কিছুদিন পরেই হল, তাদের মাঝে বাজি।
হরিণ ইলিশ ডাঙ্গা জলে খেলবে যে দৌড় খেলা
যে ফার্স্ট হবে সে নেবে খুব দামি পুঁতির মালা
নিয়ম মেনে বন্ধু দুজন নামলো খেলায় ঠিকই
প্রতিবারই ইলিশ প্রথম, থাকলো হরিণ ফিকই
গর্বে ইলিশ বসলো চেয়ে, ওগো হরিণ ভাই
আমার কিন্তু সবচে দামি ঐ মালাটাই চাই।
হরিণ ছানা পায় না ভেবে সবচে দামি কী
করতে হবে পূরণ তাকে বন্ধুর আশা টি
হঠাৎ সেদিন বনের ভেতর দুই শিকারি আসে
বন হরিণের মাংস নিয়ে স্বাদের গল্পে ভাসে।
এমন কথা শুনে হরিণ যায় পালিয়ে দূরে
মোটকা গাছের গর্তে বসে কাঁদে করুণ সুরে
অবশেষে হরিণ ছানার ঘটলো ভাবার ইতি
সবচে দামি মাংস নিজের, ভাবলে আসে ভীতি!
বন্ধু ইলিশ তোমার জন্য হচ্ছে রেডি মালা
তৈরি থেকো সকাল সকাল মন করে উজালা
যথাসময় নদীর তীরে হরিণ চাকু হাতে
নিজের মাংস কেটে কেটে সুতা দিয়ে গাঁথে
বিশ্বজয়ের মালা পরে, ইলিশ গেল ছুটে
রক্তমাখা হরিণ শাবক পড়লো জলে লুটে।

SHARE

Leave a Reply