Home কুরআন ও হাদিসের আলো কুরআনের আলো পুনর্জীবন

পুনর্জীবন

কুরআন পড়তে পড়তে এক জায়গায় এসে থেমে গেল মাহবুব। থামতেই হলো তাকে। দু’টি আয়াত অতিক্রম করে সামনে যেতে পারছে না কোনোভাবেই। বারবার পড়ছে তো পড়ছেই! তার শরীর শিউরে উঠছে। আর ভাবছে, মহান আল্লাহর অসীম ক্ষমতার কথা। ভাবছে, কিভাবে তিনি মৃতকে জীবিত করবেন, সেই অকল্পনীয় দৃশ্য!
আয়াতগুলো নিয়ে রীতিমতো গবেষণা শুরু করে দিয়েছে মাহবুব। খুলে বসেছে পারিবারিক পাঠাগার থেকে কয়েকটি তাফসিরের কিতাব! প্রথম আয়াতটি হলো-
“অথবা সেই ব্যক্তির কথা ভেবে দেখনি? যে এমন এক নগরে উপনীত হয়েছিল, যা ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছিল। সে বলল, ‘মৃত্যুর পর কিভাবে আল্লাহ এ নগর জীবিত করবেন?’ তখন তাকে আল্লাহ এক শ’ বছর মৃত রাখলেন, তারপর তাকে পুনর্জীবিত করলেন। আল্লাহ বললেন, ‘তুমি (মৃত অবস্থায়) কতক্ষণ ছিলে?’ সে বলল, ‘একদিন অথবা একদিনের কিছু অংশ!’ তিনি বললেন, ‘বরং তুমি এক শ’ বছর ছিলে! অথচ তোমার খাদ্যসামগ্রী ও পানীয় বস্তুর প্রতি লক্ষ কর, তা অবিকৃত রয়েছে। আর তুমি তোমার গাধাটির প্রতি লক্ষ কর (যার হাড়গোড় পড়ে আছে)। আমি তোমাকে মানবজাতির জন্য নিদর্শনস্বরূপ করব। আর (গাধার) অস্থিগুলো লক্ষ কর, কিভাবে সেগুলোকে আমি সংযোজিত করি, অতঃপর গোশত দিয়ে ঢেকে দেই।’ সুতরাং যখন এটি তার কাছে সুস্পষ্ট হলো, তখন সে বলে উঠল, ‘আমি জানি যে, আল্লাহ সর্ব বিষয়ে মহাশক্তিমান।”
এর পরের আয়াতেই আছে- “আর (স্মরণ কর) যখন ইবরাহিম বলল, ‘হে আমার প্রতিপালক! কিভাবে তুমি মৃতকে জীবিত কর, আমাকে দেখাও।’ তিনি বললেন, ‘তুমি কি তাহলে বিশ্বাস কর না?’ সে বলল, ‘অবশ্যই (বিশ্বাস করি)। কিন্তু আমার মনকে পরিতৃপ্ত করার জন্য (দেখতে চাই)!’ তিনি বললেন, ‘তবে চারটি পাখি ধরো এবং (পুষে) তোমার বশীভূত কর। (জবাই করার পর টুকরো টুকরো করে একসাথে মেশাও)। তারপর তাদের এক এক অংশ এক এক পাহাড়ে রেখে এসো। অতঃপর তাদের ডাক দাও। (দেখবে,) ওরা দ্রুতগতিতে তোমার কাছে এসে উপস্থিত হবে। আর জেনে রাখো, আল্লাহ প্রবল পরাক্রমশালী, প্রজ্ঞাময়।” (সূরা আল বাকারাহ : ২৫৯-২৬০)
অশ্রুভেজা চোখে মাহবুব বলতে লাগল, দয়াময়! জানি, মাটিতে মিশে গেলে এভাবেই তুমি জাগিয়ে তুলবে আমাদের। তবে সে জাগরণ যেন হয় সুখের! জান্নাতপ্রাপ্তির আনন্দের!
– বিলাল হোসাইন নূরী

SHARE

Leave a Reply