Home নিয়মিত খোলা ডাক – এপ্রিল’ ২০১৯

খোলা ডাক – এপ্রিল’ ২০১৯

অনেক দামি বন্ধু

আমি তোকে আজ একটি দামি জিনিস উপহার দিবো, নিবি? আমি বললাম কী দামি জিনিস? সে বলল, একটি কিশোরকণ্ঠ। বললাম এটি কী, সে বলল, এটা একটি মাসিক পত্রিকা। যে বইটি আমাকে অনেক কিছু দেয়। আসলে কিশোরকণ্ঠের মতো সাহিত্য মনে হয় আগে কখনো পড়িনি, তখন থেকে আমার দামি জিনিস কিশোরকণ্ঠ। আহা ! কী ভালো।
মো: উমর আলী
চাপানীহাট, ডিমলা, নীলফামারী

যেন ঝরনার স্পর্শ

ঝরনার স্পর্শে যেমন মাঠ-প্রান্তর সবুজ শ্যামলে ভরে ওঠে তেমনই কিশোরকণ্ঠ এমনই একটি পত্রিকা যার স্পর্শেও তরুণ হৃদয় আদর্শে ভরে ওঠে। তাই আমি কিশোরকণ্ঠকে প্রাণের চেয়েও বেশি ভালোবাসি। এটি যেন আমার প্রাণের ¯পন্দন। কিশোরকণ্ঠ পেয়ে অন্য সকল কিছুর থেকে বেশি আনন্দ পাই। এটি ঝরনার মতোই আমাদের চলার পথকে সুন্দর করে পরিচালিত করে। আমি গর্বিত কিশোরকণ্ঠ পেয়ে।
মুজাহিদুল ইসলাম
নয়াবাজার, জুড়ী, মৌলভীবাজার

অনুপ্রেরণা জোগায়

আজকে যারা জীবনযুদ্ধের সংগ্রামে নিজেকে তুচ্ছ মনে করে একটু অসচ্ছল থাকার কারণে পড়াশুনা থেকে দূরে রয়েছে আমার মনে হয়, তাদের কিশোরকণ্ঠ পড়া দরকার। কেননা কিশোরকণ্ঠ পড়লে জানা যায় যে, চেষ্টা করলে কোনো বাধা জীবনকে পিছিয়ে দিতে পারে না। কিশোরকণ্ঠ পড়লে নিজেকে নিয়ে ভাবতে শেখা যায়। কখনোই নিজেকে তুচ্ছ মনে হয় না। চেষ্টার মাধ্যমে আমার দ্বারা সবকিছু সম্ভব এটাই মনে হয়। তাই কিশোরকণ্ঠ একটি প্রেরণার বাতিঘর।
মো: জহুরুল ইসলাম
খালিশা চাপানী, ডিমলা, নীলফামারী

আলোর দিশা

আমার জীবনে প্রথম পত্রিকা হলো কিশোরকণ্ঠ। এই পত্রিকা পড়ার মাধ্যমে আমি যেন অন্য রকম আনন্দ পেতাম। কারণ, কিশোরকণ্ঠে রয়েছে হাসির বাকসো, কার্টুন, খেলাধুলার খবর, সায়েন্স ফিকশন, বিভিন্ন গল্প, ঘটনা ইত্যাদি। এগুলো খুবই মজার বিষয়, যা অন্য কোনো পত্রিকায় খুঁজে পাইনি। কিশোরকণ্ঠে বিভিন্ন ধরনের গল্প, ঘটনা থাকে যা পড়লে একজন কিশোরের জীবন মুহূর্তে পরির্বতন হবে নিশ্চিত এবং সে আলোর দিশা পাবে। নতুন কিশোরকণ্ঠ পড়ার মাধ্যমে কিশোর জীবনে পথ চলা সুগম হবে এবং তার বড় হওয়ার অনুপ্রেরণা দিন দিন বেড়ে যাবে।
মো: মিজানুর রহমান মাবেদ
নয়াটোলা কামিল মাদ্রাসা, রমনা

আমার বন্ধু

কিশোরকণ্ঠ একটি সুন্দর পত্রিকা যা দেখলে আমার ছোট মন নেচে ওঠে। এর চেয়ে সুন্দর পত্রিকা জীবনেও পড়িনি। কিশোরকণ্ঠ আমার বন্ধু। আমি যখন তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ি তখন থেকে আমি কিশোরকণ্ঠ পড়ি। তখন শুধু গল্প, কার্টুন, হাসির বাক্স পড়তাম। আর এখন কিশোরকণ্ঠের সবকিছুই পড়ি। বিশেষ করে গল্প, উপন্যাস, কুরআনের আলো, হাদিসের আলো, ভ্রমণ কাহিনীসহ সবগুলোই পড়ি। কিশোরকণ্ঠ আমাদের মতো ছোট শিশুদের আনন্দে মেতে উঠতে সাহায্য করে। এতে আমি নিশ্চিত কিশোরকণ্ঠকে সবাই ভালবাসেন। আমি আশা করি কিশোরকণ্ঠ আমাদের মাঝে সারা জীবন বেঁচে থাকবে।
জুয়াইরিয়া
দুলারহাট, ভোলা

জ্ঞানের অনন্য ভাণ্ডার

আমি কিশোরকণ্ঠের নতুন বন্ধু। আমি কিশোরকণ্ঠের সাথে যুক্ত হয়ে বুঝেছি পড়াশোনার মজা কী! আমি যে সময়টা বন্ধুদের সাথে কাটাতাম সে সময়টা আমি কিশোরকণ্ঠের সাথে কাটাতে পারছি এবং এর দ্বারা বিভিন্ন ধরনের জ্ঞান অর্জন করতে পারছি। এটি জ্ঞানের এক অনন্য ভাণ্ডার। আমি তো পড়ছি এবং আমার বন্ধুদেরও পড়ার জন্য উদ্বুদ্ধ করছি।
শাহরিয়ার কবির
মোরেলগঞ্জ, বাগেরহাট, খুলনা

প্রিয় বই

আমি ছোটবেলা থেকেই কিশোরকণ্ঠ পড়তে খুব ভালোবাসি, আমার পাঠ্যবইয়ের পর এটি আমার প্রথম প্রিয় বই। এই কিশোরকণ্ঠ থেকে আমি পৃথিবীর অনেক বিষয়েরই ধারণা পাই এবং কুরআন ও হাদিসের জ্ঞানও এখান থেকে পাওয়া যায়। এ জন্যই কিশোরকণ্ঠ প্রিয় সাথী। ঝড়, ও ষড়াব শরংযড়ৎশধহঃযধ.
মাহফুজা খাতুন
সৈয়দপুর, নীলফামারী

SHARE

Leave a Reply