Home চিত্র-বিচিত্র সৌন্দর্যের আবরণে বিষাক্ত রূপ । নুসাইবা মুমতাহিন

সৌন্দর্যের আবরণে বিষাক্ত রূপ । নুসাইবা মুমতাহিন

বন্ধুরা কেমন আছ! নিশ্চয় ভালো।

তোমাদের মাঝে এবার নতুন একটি লেখা নিয়ে হাজির হয়েছি। আশা করি অন্যান্য লেখার মত এই লেখাটাও তোমাদের ভালো লাগবে।

বন্ধুরা! তোমরা জান, এই পৃথিবীতে অসংখ্য প্রাণী আছে। তার মাঝে ভয়ঙ্কর প্রাণীর সংখ্যা কম নয়। এদের কারও কারও মূল অস্ত্র শক্তি অথবা বিষ। শিকারকে হয় শক্তি দিয়ে হিংস্রভাবে মেরে ফেলে নয়তো বিষ দিয়ে ঘায়েল করার চেষ্টা করে। আজকে তোমাদের জানাবো পৃথিবীর সবচেয়ে বিষাক্ত কিছু প্রাণী সম্পর্কে ।

ব্লু রিংড অক্টোপাস

অত্যন্ত সুন্দর প্রাণীটিকে পৃথিবীর অন্যতম বিষাক্ত প্রাণী হিসেবে বিবেচনা করা হয়। আকারে প্রাণীটি দেখতে একটি গলফ বলের মতো। প্রাণীটির চমৎকার রূপে যদি তুমি বিমোহিত হও তাহলে সেটিই তোমার সর্বনাশ ডেকে আনতে পারে। কেননা এই প্রাণীটির বিষ একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষকে মেরে ফেলার জন্য যথেষ্ট।

 

বিষাক্ত-রূপ২দ্য ব্রাজিলিয়ান ওয়ান্ডারিং

পৃথিবীর সবচেয়ে বিষাক্ত মাকড়সাটির নাম দ্য ব্রাজিলিয়ান ওয়ান্ডারিং। দক্ষিণ আমেরিকার জঙ্গলে এ মাকড়সাটির দেখা মিলে। ভীষণ আগ্রাসী এবং আক্রমণাত্মক এ মাকড়সাটির কামড়ে আক্রান্ত স্থানে তীব্র ব্যথা অনুভূত হয়। শরীরের বিভিন্ন স্থান অবশ হওয়া শুরু করে। এমনকি আক্রান্ত প্রাণীটি মারাও যেতে পারে।

 

বিষাক্ত-রূপবক্স জেলিফিশ

এই প্রাণীটিকে দেখলে তোমাদের হাত দিয়ে ধরতে মন চাইবে। এতো সুন্দর একটি প্রাণীকে হয়তো হাত দিয়ে না ধরেও থাকতে পারবে না। কিন্তু অপরূপ সুন্দর এই প্রাণীটিই পৃথিবীর সবচেয়ে বিষাক্ত প্রাণী। প্রাণীটিকে Box of Death বা মৃত্যুর বাক্স নামেও ডাকা হয়। লম্বা কর্ষিকা বিশিষ্ট প্রাণীটি নেমাটোসিস্ট ও বিষ বহন করে। এই প্রাণীটির বিষের প্রতিরোধক এখনও আবিষ্কার হয়নি। পৃথিবীর সব মহাসাগরেই এই প্রাণীটির দেখা মিলে।

 

বিষাক্ত-রূপ৩ডেথস্টেকার

ডেথস্টেকার প্রাণীটি একটি কাঁকড়া বিছে। এই প্রাণীটি একবার কোন মানুষকে হুল ফুটালে বিষ সরাসরি তার স্নায়ুতন্ত্রে আক্রমণ করে। অবশেষে অসহ্য যন্ত্রণা এবং মাংসপেশির প্রবল সংকোচনের মাধ্যমে মৃত্যু ঘটে। উত্তর আফ্রিকা এবং মধ্যপ্রাচ্যে এই প্রাণীটির দেখা মিলে।

 

বিষাক্ত-রূপ৫পয়জন ডার্ট ব্যাঙ

ব্যাঙটির অসাধারণ সৌন্দর্য নিঃসন্দেহে তোমাকে মোহিত করবে। আমাজন জঙ্গলে ব্যাঙগুলোর দেখা মিলে। লম্বায় সাধারণত এরা ২ ইঞ্চি হয়ে থাকে। স্থানীয় আদিবাসীরা তীরের ডগায় এই ব্যাঙের বিষ ব্যবহার করে শিকার করে। এই ব্যাঙের মাত্র ২ মাইক্রো গ্রাম বিষ একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষকে মেরে ফেলার জন্য যথেষ্ট।

 

বুঝলেতো বন্ধুরা সব সৌন্দর্যই কিন্তু বিশুদ্ধ হয় না। তাই সৌন্দর্যে মোহিত হওয়ার আগে আমাদের পরখ করে নেয়া উচিত।

SHARE

Leave a Reply