Home ছড়া-কবিতা ছড়া-কবিতা

ছড়া-কবিতা

ইচ্ছে আমার
কামরুল আলম

মিটি মিটি তারাগুলো যখন দেখি জ্বলে
নয়তো কিবা চাঁদ মামাটা আকাশ পথে চলে
তখন আমার মন ছুটে যায় নীল আকাশের বুকে
ইচ্ছে করে ওদের মতো থাকবো আমি সুখে।

যখন দেখি ভোর-বিহানে সূর্যি মামা জাগে
নয়তো দেখি হিম কুয়াশা, তীব্র শীতে মাঘে
তখন আমার মন ছুটে যায় মাঠের পরে মাঠে
একটুও যে মন বসে না বই-খাতা ও পাঠে।

নদীর পাড়ে হাঁটতে গিয়ে দেখি যে তার ঢেউ
কিংবা দেখি বিল-হাওরে নৌকা চালায় কেউ
তখন আমার ইচ্ছে করে আমিও হই মাঝি
প্রকৃতির এই রঙে-রূপে একটুখানি সাজি।

যখন দেখি গাছের ডালে পাখির নাচানাচি
ফুলগুলি সব ছড়িয়ে থাকে তাদের কাছাকাছি
তখন আমার ইচ্ছে যে হয় আমিও হই পাখি
ফুলের বনে পাখির সনে করবো মাখামাখি।

সন্ধ্যাবেলা যখন দেখি সূর্যটা দেয় টা-টা
পাখিরা সব ফিরছে নীড়ে, চুপ হয়ে যায় গাঁ-টা
আমি তখন নিজেই খুঁজি আমার আসল নীড়
মাথার ভিতর হরেক রকম প্রশ্ন করে ভিড়-

‘কে বানালো চাঁদ-সুরুজ আর কে বানালো তারা
যা দেখে এই মনটা আমার হচ্ছে পাগলপারা
কে বানালো পাখ-পাখালি, গাছের ডালে ফুল
কে ছড়ালো বিল-সাগর ও নদ-নদীদের কূল?’

ইচ্ছে আমার এখন কেবল তাঁরই কাছে যাওয়া
এই জীবনে পূরণ হবে তবেই আমার চাওয়া।

 

ভোরের সকাল
মুহাম্মদ আনোয়ার

ডাকে তোমায় ভোরের সকাল
খোলো তোমার আঁখি,
তোমার আগে জাগবে কেনো
বনবনানীর পাখি?

রোজ বিহানে মেলবে আঁখি
উঠবে সবার আগে,
মনের সুখে আসবে ঘুরে
কুসুম কলির বাগে।

পাখ পাখালির কিচির মিচির
দেখবে ফুলের হাসি,
পুকুর ডোবায় দেখবে তুমি
পদ্ম রাশি রাশি।

শিশির ভেজা সবুজ ঘাসে
মুক্তো কণা ঝরে,
হিমেল বায়ুর নরম ছোঁয়ায়
মনটা যাবে ভরে।

রোজ সকালে দিবে তুমি
সূর্যি মামায় ফাঁকি,
সূর্যি মামার ঘুম ভাঙাতে
করবে ডাকাডাকি।

 

জন্মভূমি
সালাউদ্দীন আইউবী

নীলাভ সবুজ আবরণে
প্রশান্তির ছোঁয়ায় শান্ত মনে
অসহনীয় ক্লান্ত ক্ষণে তুমি
হে আমার প্রিয় জন্মভূমি।

হাজারো চিত্র-বিচিত্রায়ণে
জমকালো আয়োজনে
গ্র্যান্ড হোটেলের আপ্যায়নে
নজরকাড়া মনমাতানো বিনোদনে
পাইনি আমি সুখ,
তাইতো গ্রামে আসি আমি
দেখি তোমার মুখ।

 

কে জি মোস্তফা’র গুচ্ছ ছড়া

১.
পৃথিবীতে সবচেয়ে প্রিয় কোন্্ দেশ
আমার জন্মভূমি সোনার বাংলাদেশ।
ঐ দেখ আমাদের পতাকা দোলে
সূর্যটা বসে আছে সবুজের কোলে।

২.
চাঁদ-তারা জেগে থাকে আকাশের গায়
মেঘগুলি ভেসে ভেসে কোথায় চলে যায়।

৩.
আমরা আলোর পাখি গেয়ে যাই গান
সুরে সুরে ভরে তুলি অভাগার প্রাণ।

৪.
ফুটপাথে রাতদিন বাস করে যারা
শীত-গ্রীষ্ম-বরষায় ধুঁকে মরে তারা।

৫.
কাকের বাসায় কোকিল ছানা
দোয়েল কোয়েল কেউ জানে না
জানাজানি হয়ে গেলে কোকিল ধরা পড়বে
বোকা পাখি কাক তখন নিজের ভুল বুঝবে।

৬.
জেলেরা আর মাছ ধরে না
খাল-বিল-পুকুরে
ট্রলার নিয়ে ছুটে চলে
নদী কিবা সাগরে।

 

 

SHARE

Leave a Reply