Home তোমাদের কবিতা তোমাদের ছড়া-কবিতা

তোমাদের ছড়া-কবিতা

শীত এল
আবুল বাশার

কুয়াশার চাদরটা মুড়ি দিয়ে
শীত এল গুড় আর মুড়ি নিয়ে।
লেপ ছেড়ে বের হওয়া যায় না
তাড়াতাড়ি পড়াওতো হয় না।
দেড় মণ বোঝা নিয়ে পথ চলা
তাই দেখে হেসে দেয় হরবোলা।
হাতে পায়ে মোজা সোয়েটার গায়ে
কান আঁটা টুপি পরে শীতটার ভয়ে।
নিঃস্বরা কাঁপে এই শীতে থরথর
শীত বুড়ি চেনে না তো নারী আর নর।

ক্ষমা করো
শাজাহান কবীর শান্ত

জাগতে হবে সবার আগে
কুসুম ফুটে গোলাপ বাগে
যেমনি আসে ভোর,
নামাজ কায়েম হলে পরে
ছড়িয়ে পড়ো জমিন ধরে
করবো নাকো জোর।

ইসলাম আনে শান্তি মনে
এসব জানে সকল জনে
মানছে কতো লোক
মুখোশধারী দ্বন্দ্বে আবার
কিছু লোকে করছে সাবাড়
রাক্ষসী দুই চোখ।

নতুন দিনে
এনাম রাজু

চারিদিকে শুনি ভাই আসছে নতুন দিন
মিটিয়ে দিতে হবে তাই পুরনো ঋণ।
নতুন বর্ষ আসছে ভেবে খোকা-খুকি খুশি
সেই খুশিতে দারুণ খুশি আমার প্রিয় পুষি।

ইচ্ছা করে
নকীবুস সালেহীন

আমার কেবল ইচ্ছে করে
খোদার পথে চলতে
মিথ্যাটাকে ধ্বংস করে
সত্য কথা বলতে।
আমার আরো ইচ্ছে করে
আশার ছবি আঁকতে
বিশ্বটাকে মুক্ত করে
সবুজ ঘিরে থাকতে।

মূল্যহীন
এইচ এস সরোয়ারদী

পরকে নিয়ে ভাবে না যে
ভাবে নিজকে নিয়ে
কি আর হবে তার মত
এমন জীবন দিয়ে।
মৌমাছিরা পরের জন্য
সারাক্ষণই ছোটে
এই পৃথিবীর যত ফুল
পরের জন্য ফোটে।
তুমি কেবল নিজের জন্য
ছোটো সারাদিন
মনে রেখো এমন জীবন
সত্যি মূল্যহীন।

অঙ্ক
জোবায়ের হোসেন রাফি

আব্বু বলেন অঙ্ক কষো
রেখে এবার ইংরেজি
অঙ্কের কথা শুনলে মাথায়
যুদ্ধ করে সাপ বেজি।
বাংলা পড়া কত্ত মজা
নানান রকম ছড়া
অঙ্কের ভিতর কেনো এতো
প্যাঁচে প্যাঁচে ভরা?
সমাজ বিজ্ঞান ধর্ম, কর্ম
সবই ভালো লাগে
অঙ্ক দেখলে ধুত্তুরি যা!
আলসেমিটা জাগে।
মজার বিষয় যায় না পড়া
অঙ্ক কষার বাধায়
আমার মাথা হরহামেশা
ঘোরে তারই ধাঁধায়।

শপথ
আয়েশা ছিদ্দিকা তাকিয়া

মিথ্যা কথা যায় যে বলা
অতি সহজ করে
ধ্বংস তাতে দেয় যে নাড়া
যদি কপাল ধরে।
সত্য যদি হারিয়ে যায়
মিথ্যা কথার মাঝে
রহম সেতো থাকবে দূরে
সকল প্রকার কাজে
সত্য সেতো অমর বাণী
যায় না কভু খোয়া
মিথ্যা কথা বললে কভু
হয় না কবুল দোয়া
আজকে সবাই শপথ করি
মিথ্যাটাকে ভুলে
দুঃখ কষ্ট দূরে ঠেলে
সত্যকে নেই তুলে।

নতুন বর্ষ
নাজমুল হক চৌধুরী

দিন গেলো, মাস গেলো
বছর গেলো চলে,
পুরো বছর কাটলো আমার
শুধুই খেলার ছলে!
হায় চলে যায়, দিন চলে যায়
হয়নি করা কিছু,
জীবন সংসার টানলো আমায়
শুধুই যেন পিছু!
এমন চলা আর চলে না
লাগতে হবে কাজে,
নতুন বর্ষে পণ করেছি
সাজবো নতুন সাজে।
নতুন করে স্বপ্ন দেখি
নতুন করে আঁকি,
নতুন করে গড়বো স্বদেশ
এই কামনা রাখি।

শীতের আমেজ
তানভীর সিকদার

হিমেল হাওয়া, শীতের ভোরে
সর্দি আটক নাকে,
দূরের কোথাও ঝিলের পাড়ে
পাখিগুলো ডাকে।
খেজুর গাছের মাথায় বাঁধে
কলসি মাটির দাদা,
আঁধার তবুও শীতের রাতে
দেখছি শুধুই সাদা।
গাঁয়ের সবাই নতুন চালে
বুনছে শীতের পিঠা,
পিঠার সাথে গাছের তাজা
রস না হলে মিঠা।
দামাল কিশোর ভয়ের চোটে
ঠান্ডা হয়ে কাঁপে
উধাও আবার এক নিমিষে
দুঃসাহসী ঝাঁপে।

শীতের সময়
তারেক আহমেদ রানা

শীত এসেছে শীত এসেছে
সারা বাংলা জুড়ে
শহর থেকে গ্রাম ছাড়িয়ে
আরো অনেক দূরে।
শীতের সময় নানান পাখি
করছে ডাকাডাকি
উঠোন থেকেই দেখতে পাই
অনেক রঙের পাখি।

 

SHARE

Leave a Reply