Home স্বাস্থ্য কথা কালিজিরার উপকারিতা -জুনাইদ জামশেদ

কালিজিরার উপকারিতা -জুনাইদ জামশেদ

বন্ধুরা আজকে আমরা জানবো কালিজিরা কতটা উপকারী।
নিয়মিত কালিজিরা সেবনে স্পার্ম সংখ্যা বৃদ্ধি পায় এবং স্পার্মের গুণাগুণ বাড়ে। কালিজিরার বৈশিষ্ট্য এবং এর স্বাস্থ্যগত গুণগুলো নিম্নে দেয়া হলো :
ভীষণ উপকারী জিনিস কালিজিরা। এটাকে খাবার না বলে পথ্য বলাই ভালো। এখন প্রচণ্ড গরম। এই মৌসুমে গরম ও ঠাণ্ডাজনিত কারণে অনেকের জ¦র হচ্ছে। জ¦র, কফ, গায়ে ব্যথা দূর করার জন্য কালিজিরা যথেষ্ট উপকারী বন্ধু। এতে রয়েছে ক্ষুধা বাড়ানোর উপাদান। পেটের যাবতীয় রোগ-জীবাণু ও গ্যাস দূর করে ক্ষুধা বাড়ায়। যারা মোটা হতে চান, তাদের জন্য কালিজিরা যথাযোগ্য পথ্য। আবার যাদের শরীরে পানি জমে হাত-পা ফুলে যাওয়ার সমস্যা রয়েছে, তাদের পানি জমতে বাধা দেয়। কালিজিরা শরীরের জন্য খুব প্রয়োজন।
কালিজিরা আমাদের মেধা বিকাশের জন্য কাজ করে দ্বিগুণ হারে। কালিজিরা নিজেই একটি অ্যান্টিবায়োটিক বা অ্যান্টিসেপটিক। দাঁতে ব্যথা হলে কুসুম গরম পানিতে কালিজিরা দিয়ে কুলি করলে ব্যথা কমে, জিহ্বা, তালু, দাঁতের মাড়ির জীবাণু মরে। খুব বেশি কালিজিরা খেলে হিতে বিপরীত হবে। আর যারা কালিজিরা হজম করতে পারে না, তারা খাবে না। কালিজিরা কৃমি দূর করার জন্য কাজ করে। তারুণ্য ধরে রাখে দীর্ঘকাল। আমাদের কাজ করার শক্তিকে দ্বিগুণ বাড়িয়ে দেয়। দেহের কাটা- ছেঁড়া শুকানোর জন্যও কাজ করে। তাই প্রতিদিন অল্প করে ভাত বা রুটির সঙ্গে খেতে পার কালিজিরা।
মাথাব্যথার জন্য কালিজিরা অনেক উপকারী। মাথা ব্যথা হলে কপালের দুই পাশ এবং কানের পাশে দিনে তিন-চারবার কালিজিরার তেল মালিশ করতে হবে।
কালিজিরা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করে। রোগীদের রক্তের শর্করার মাত্রা কমিয়ে দেয় এবং নিম্নে রক্তচাপকে বৃদ্ধি করে ও উচ্চ রক্তচাপকে হ্রাস করে। এ ছাড়া মস্তিষ্কের রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধির মাধ্যমে স্মরণশক্তি বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। এ ছাড়া অরুচি, উদরাময়, শরীর ব্যথা, গলা ও দাঁতের ব্যথা, মাইগ্রেন, চুলপড়া, সর্দি, কাশি, হাঁপানি নিরাময়ে কালিজিরা সহায়তা করে। ক্যান্সার প্রতিরোধক হিসেবে কালিজিরা সহায়ক ভূমিকা পালন করে।
কালিজিরা মশলা হিসেবে ব্যাপক ব্যবহার হয়ে থাকে। এটি পাঁচফোড়নের একটি উপাদান। এর বীজ থেকে তেল পাওয়া যায়। তবে পুরনো কালিজিরা তেল স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক। হ

SHARE

Leave a Reply