Home স্বাস্থ্য কথা লেবুর গুণাগুণ -জুনাইদ জামশেদ

লেবুর গুণাগুণ -জুনাইদ জামশেদ

ওজন কমাতে সকালে উঠে অনেকেই খান লেবুর শরবত। জানেন কি এতে শুধু ওজন কমা নয়, আরও অনেক উপকার পাওয়া যায়? রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো থেকে শুরু করে পেট পরিষ্কার রাখার মতো প্রচুর উপকার করে লেবু। জেনে নিন লেবুর অসাধারণ ১০টি উপকারিতা।
হজমশক্তি বাড়ায়
লেবুর রস শরীর থেকে টক্সিন দূর করে। বদহজম, বুক জ্বালার সমস্যাও সমাধান করে লেবুর পানি।
ক্ষতিকারক পদার্থ বের
শরীর থেকে অপ্রয়োজনীয় ক্ষতিকারক পদার্থ বের করতে সাহায্য করে লেবুর পানি। ফলে ইউরিনেশন ভাল হয়। লিভার ভাল থাকে।
রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা
লেবুর মধ্যে থাকা প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি সর্দি-কাশির সমস্যা দূর করতে অব্যর্থ। স্নায়ু ও মস্তিষ্কের ক্ষমতা বাড়ায়। ফুসফুস পরিষ্কার করে হাঁপানি সমস্যার উপশম করে।
পিএইচ ব্যালান্স
লেবু শরীরের পিএইচ ব্যালান্স সঠিক রাখতে সাহায্য করে। লেবুর মধ্যে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিড মেটাবলিজমের পর ক্ষার হিসাবে কাজ করে। ফলে রক্তের পিএইচ ব্যালান্স বজায় থাকে।
ত্বক
লেবুতে থাকা ভিটামিন সি ও অন্যান্য অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট ত্বকের বলিরেখা দূর করতে সাহায্য করে। ব্যাকটেরিয়া রুখে অ্যাকনে সমস্যার সমাধান করে। রক্ত পরিষ্কার রেখে ত্বকের দাগ ছোপ দূরে রাখে।
এনার্জি বাড়ায়
লেবু খেলে শরীরে পজিটিভ এনার্জি বাড়ে। উৎকণ্ঠা ও অবসাদ দূরে রেখে মুড ভাল রাখতে সাহায্য করে।
ক্ষত সারায়
লেবুর মধ্যে থাকা অ্যাবসরবিক অ্যাসিড ক্ষতস্থান দ্রুত সারাতে সাহায্য করে। হাড়, তরুণাস্থি ও টিস্যুর স্বাস্থ্য ভাল রাখে।
শ্বাস
লেবু ফুসফুস পরিষ্কার রাখার ফলে শ্বাস-প্রশ্বাস তাজা রাখে। খাওয়ার পর লেবুর পানি দিয়ে মুখ ধুলে ব্যাকটেরিয়া দূর হয়।
লিম্ফ সিস্টেম
গরম পানিতে লেবু দিয়ে খেলে শরীর হাইড্রেটেড থাকে। শরীরে ফ্লুইডের সঠিক মাত্রা বজায় রেখে কোষ্ঠকাঠিন্য, ক্লান্তি, রক্তচাপজনিত সমস্যা দূরে রাখে। ঘুম ভাল হয়।
ওজন
সব শেষে আসি ওজনের কথায়। লেবুতে থাকা পেকটিন ফাইবার খিদে কমাতে সাহায্য করে। সকালে উঠে লেবু দিয়ে গরম পানি খেলে সারা দিন কোন খাবার খাওয়া, কোনটা খাওয়া যাবে না তা বেছে নিতে সাহায্য করে লেবুর পানি।
লেবুর পানি ব্যবহারে আমাদের দেহের অনেক উপকার আসে।
যদি আমরা নিয়মিত লেবু সঠিকভাবে ব্যবহার করি, তাহলে অনেক রোগ থেকে আমরা মুক্তি পেতে পারি।

SHARE

Leave a Reply