Home ছড়া-কবিতা কবিতা

কবিতা

মেঘ গুড়গুড় বৃষ্টি
-জ্যোতির্ময় মল্লিক

উতাল হাওয়ায় এলো মেলো সকল গাছের পাতা,
তেপান্তরের মাঠে একা ছাতিম দোলায় মাথা।
মেঘেরা সব জোট বেঁধেছে আকাশ করে কালো,
সাঁঝ না হতেই নিভিয়ে দিল দিনের সকল আলো।

গুড়–ম গুড়–ম মেঘের ডাকে কাঁপছে চরাচর,
ভেজার ভয়ে হাটের সবাই ফিরছে আপন ঘর।
মেঘের বাদল বাজিয়ে নূপুর পড়বে বুঝি ঝরে,
ধবল গাই বাছুর নিয়ে ফিরবে কেমন করে!

মাঠ ঘাট সব ভরবে বুঝি ভাঙবে গাঙের ঘুম,
খাল নালাতে পড়বে এখন মৎস্য ধরার ধুম।
মেঘ গুড়গুড় বৃষ্টি ঝরে বৃষ্টি এলো ওই,
ঝমঝমা ঝম একটানা সুর থামার সময় কই !

মেঘ গুড়গুড় বৃষ্টি ঝরে বইছে ঝড়ো হাওয়া,
ঘর ছেড়ে আজ খেলার জন্য যায় না মাঠে যাওয়া।

ট্রেনের চাকায়
-ফজলুল হক তুহিন

যাচ্ছি ঢাকায়
ট্রেনের চাকায়
দেখছি বিশাল মাঠ
বইছে সবুজ
মনটা অবুঝ
হাসছে ধান পাট।

গ্রাম ছেড়ে গ্রামে
লোকে ওঠে নামে
ট্রেন চলে ঝক ঝক
শহর ছাড়িয়ে
দু’হাত বাড়িয়ে
লোকে করে বকবক।

মানুষের ভিড়ে
মুড়ি আর চিঁড়ে
খেতে খেতে কথা চলে
রাতের আঁধারে
জানালা ও দ্বারে
দেখি জোনাকিরা জ্বলে।

ট্রেন এসে থামে
সকলেই নামে
স্টেশনে দেখি মামা
সেকি আনন্দ
ভেঙেছে ছন্দ
পেয়েছি নতুন জামা।

SHARE

Leave a Reply