Home কুরআন ও হাদিসের আলো কুরআনের আলো সময়ের স্রোত

সময়ের স্রোত

এবারের পরীক্ষাটা একেবারেই ভালো হয়নি তার। সাকিব ভাবল, রেজাল্ট বেরুনোর পরপরই সে পড়ালেখায় গভীর মনোযোগী হয়ে উঠবে। সবাইকে দেখিয়ে দেবে, সেও পারে। মেধা-মনন ও সৃজনশীলতায় ক্লাসের কারো থেকেই পিছিয়ে নেই সে। কিন্তু তার এক ভয়ঙ্কর শত্রু আছে। যে শত্রু তার সামনে সবসময় বাধা হয়ে দাঁড়ায়। আগলে রাখে তার এগিয়ে যাওয়ার পথ। থামিয়ে দেয় স্বপ্নের ওড়াউড়ি। বিচূর্ণ করে নিজের হাসিমুখ দেখার আয়না। সে শত্রুর নাম ‘অলসতা’। অলসতার চাদরে আবৃত সে যেন জীবন্মৃত কেউ।
রেজাল্ট বেরোলো। সেদিন ছিল বুধবার। না, এবার পড়াশোনা শুরু করতেই হবে। তবে আজ থেকে নয়। সপ্তাহের প্রথম দিন শনিবার থেকে। শনিবার এলো। সেদিন মাসের ২৬ তারিখ। আচ্ছা, আগামী মাসের শুরু থেকেই না হয় শুরু করা যাক। এভাবে হিসাব কষতে কষতেই দরজায় কড়া নাড়লো পরবর্তী পরীক্ষা। সেইভাবে প্রস্তুতি আর হয়ে উঠল না সাকিবের। মাথার চুল ছিঁড়েও এখন কোনো লাভ নেই। সময় তো চলে গেছে তার নিজস্ব গতিতে। কিন্তু সে তো সেই গতিহীনই রয়ে গেল!
মেধাবী হওয়া সত্ত্বেও সাকিবের এই ধারাবাহিক ব্যর্থতায় হতাশ তার শিক্ষকরাও। শ্রেণি-শিক্ষক পরম মমতায় কাছে ডাকলেন তাকে। খুঁজে বের করলেন তার সমস্যা। বললেন, সাকিব! এ জীবন খুবই সংক্ষিপ্ত। এর প্রতিটি সেকেন্ড আমাদের জন্য মহা মূল্যবান। এ সম্পদ একবার হাতছাড়া হলে শত চেষ্টা করেও তাকে ফিরিয়ে আনা সম্ভব নয়। তাই এ অল্প সময়ের মধ্যে পৃৃথিবীর কল্যাণ লাভের জন্য যেমন মনে-প্রাণে চেষ্টা চালাতে হবে, তেমনি প্রস্তুতি নিতে হবে আখিরাতেরও। এ জন্য একজন মুমিনের কোনো অবসর নেই। মনে রাখবে, সময়ের মূল্য উপলব্ধি না করলে শেষ-নিঃশ্বাসের পূর্বক্ষণেও আক্ষেপ ছাড়া আর কোনো পথ খোলা থাকবে না।
আল কুরআনে এসেছে, মৃত্যু এসে গেলে মানুষ বলবে, “হে আমার প্রতিপালক! আমাকে আরও কিছুকালের জন্য অবকাশ দিলে আমি দান-সদকা করতাম এবং সৎকর্মপরায়ণদের অন্তর্ভুক্ত হতাম। কিন্তু যখন কারো নির্ধারিত সময় উপস্থিত হবে, তখন আল্লাহ তাকে কিছুতেই অবকাশ দেবেন না।” (সূরা মুনাফিকুন : ১০-১১)
সাকিব ভাবল, সত্যিই তো! পরীক্ষার পূর্ব মুহূর্তেও মনে হয়, ইস্! আরও ক’টা দিন যদি সময় পেতাম! এভাবেই একদিন মৃত্যু আসবে। প্রস্তুতি না থাকলে এভাবেই আফসোস করে মরতে হবে। না, আমার পৃথিবী, আমার পরকাল কোনোটাই ব্যর্থ হতে পারে না। দৃঢ়প্রত্যয়ে শিক্ষকের হাতে হাত রেখে সে শপথ নিলো নিজেকে সাজানোর। সময়ের ¯্রােতে সে এবার স্বপ্নভেলা ভাসাবেই। যে ভেলা একদিন পৌঁছে যাবেই ইনশাআল্লাহÑ নতুন কোনো দ্বীপে, নতুন কোনো সম্ভাবনার দেশে।
বিলাল হোসাইন নূরী

SHARE

Leave a Reply