Home হাসির বাকসো হাসির বাকসো

হাসির বাকসো

একটা লোক গরু কিনে বাড়ি যাওয়ার সময় একজনের সাথে কথোপকথন-
প্রশ্নকর্তা : গরুটা কত টাকা দিয়ে কিনেছেন?
গরুক্রেতা    : এক লাখ টাকা দিয়ে।
প্রশ্নকর্তা : আমি জানি সবাই মোটা গরু কেনে। কিন্তু আপনি এতো টাকা দিয়ে এতো চিকন গরু কিনেছেন কেন?
গরুক্রেতা : কারণ চিকন গরুতে কোনো ভেজাল থাকে না।
প্রশ্নকর্তা : কিভাবে?
গরুক্রেতা : এটা হলো এভাবে- কারণ মোটা গরুতে সুই ফুটিয়ে মোটা করা হয়, এ জন্য এর দেহে অনেক বিষাক্ত পদার্থ বা এসিড থাকে। এতে মানুষের অনেক ক্ষতি হয়। এ জন্য মোটা গরুতে এতো ভেজাল। আর এ জন্য ভেজালমুক্ত চিকন গরু কিনলাম।
মতিউর রহমান
আব্দালপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কুষ্টিয়া

একদিন ছোট বল্টু বাজারে গিয়েছে মাছ কিনতেÑ
বিক্রেতা : এই নাও, তোমাকে ওজনে কিছুটা কম দিলাম, বাসায় নিয়ে যেতে সুবিধা হবে।
বল্টু : এই নিন টাকা।
বিক্রেতা : এ কী মাছের দাম তো এক শ’ টাকা, দশ টাকা দিলে কেন?
বল্টু : টাকাটা একটু কম দিলাম, যাতে আপনার গুণতে সুবিধা হয়!
আব্দুল মাজেদ
বিয়ানীবাজার, সিলেট

দুই বন্ধুর মধ্যে কথোপকথন :
১ম বন্ধু : জানিস তোর বাবা গতকাল আমাকে গালি দিয়েছেন।
২য় বন্ধু : তাহলে তুই ভাগ্যবান।
১ম বন্ধু : মানে?
২য় বন্ধু : আমার বাবা এমন যে সহজে কাউকে কিছু দিতে চান না।
লাবু হোসেন সাগর
পঞ্চগড় সদর

বন্ধু : বলতো রানা, পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি চালাক প্রাণী কোনটি?
রানা : গরু।
বন্ধু : দুর, কিভাবে?
রানা : কেন প্রবাদে আছে না ‘অতি চালাকের গলায় দড়ি’। গরুর গলায় তো দড়িই থাকে।
মো: কামরুল ইসলাম
গুরুদয়াল সরকারি কলেজ, কিশোরগঞ্জ
দুই বন্ধুর মধ্যে কথা হচ্ছেÑ
১ম বন্ধু : বলতো রাকিব, দুই টাকা আর এক টাকা যোগ করলে কতো হয়?
২য় বন্ধু : পারবো না।
১ম বন্ধু : মনে কর তোমার বাবা তোমাকে দুই টাকা দিয়েছেন সাথে আরো এক টাকা দিলেন- মোট কতো হলো?
২য় বন্ধু : আমার বাবা আমাকে কোনো দিন এত টাকা দেননি।
আবদুল ওহাব
চাটখিল কামিল মাদ্রাসা, নোয়াখালী

প্রথম বন্ধু : আমার জীবনে একটা ইচ্ছাও পূরণ হলো না। তোর কোনো ইচ্ছা পূরণ হয়েছে?
দ্বিতীয় বন্ধু : হ্যাঁ হয়েছে, ছোটবেলায় স্যারের হাতে চুলটানা খেতে খেতে ভাবতাম, চুলগুলো না থাকলেই বুঝি ভালো হতো। এখন দেখ, মাথায় একটাও চুল নেই।
মু: আবু নাঈম
কামার পাড়া হাড়িভাসা, পঞ্চগড়

১ম বন্ধু : তোর রোল কত?
২য় বন্ধু : আমার রোল আটানব্বই। তোর রোল কত?
১ম বন্ধু : আমার রোল ময়দানব্বই।
২য় বন্ধু : দুর মিয়া! ময়দানব্বই কারও রোল হয় নাকি?
১ম বন্ধু : তোর রোল আটা হলে আমার রোল ময়দা হবে না কেন?
মু. মহিবুল্লাহ
শেখ ফজিলাতুন্নেসা মডার্ন হাইস্কুল, কুমিল্লা

মা : তোমার জন্য ফ্রিজে খুবই সুস্বাদু আইস বানিয়েছি। এই নাও একটা খেয়ে দেখ।
ছেলে : সত্যিই তো দারুণ মজা! স্কুল থেকে আসার পর আরো পাঁচটি দিতে হবে কিন্তু।
মা : পাঁচটা কেন প্রয়োজনে পঞ্চাশটা দেবো। তবে একটা শর্ত মানতে হবে।
ছেলে : কী শর্ত মা!
মা : আর কখনো আইসক্রিম খাবি না।
ছেলে : আইসক্রিম খেলে কী হয় মা?
মা : টন্সিল হয়।
মো: তারিকুল ইসলাম
বড়লেখা, মৌলভীবাজার

বন্ধু : কিরে মনমরা হয়ে বসে আছিস কেন?
পল্টু : এক বন্ধুকে তিন লাখ টাকা ধার দিয়েছিলাম প্লাস্টিক সার্জারির জন্য।
বন্ধু : তো? সে ফেরত দিচ্ছে না?
পল্টু : সার্জারির পর তো তাকে চিনতেই পারছি না!
তোফিজুল ইসলাম, আমতলা, পঞ্চগড়

এক লোক ১৩ তলা বিল্ডিংয়ের ছাদে বসে ছিলো! হঠাৎ এক লোক এসে বললো…
লোক : জামাল ভাই, আপনার মেয়ে পানিতে পড়ে মারা গেছে!
ছাদে বসে থাকা ১ম লোকটি : না এ হতে পারে না বলে বিল্ডিংয়ের ছাদ থেকে ঝাঁপ দিলো!
১০ তলা পর্যন্ত এসে সে বললো ‘আরে আমার তো কোনো মেয়ে নাই’।
৫ তলা পর্যন্ত এসে সে বললো, ‘আরে আমি তো এখনো বিয়েই করিনি’।
যখন মাটিতে পড়বে তার একটু আগে সে বললো, ‘আরে আমি তো জামালই না।’
নাঈমুর রহমান ফাহাদ
রামগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর

ভাইবোনের মধ্যে কথা হচ্ছে-
ভাই : আপা তোর ছেলেমেয়ের বার্ষিক পরীক্ষায় কার রোল কত হয়েছে?
বোন : আর বলিস না, ভাইবোন দুইটার রোল ৫০।
ভাই : অবাক হয়ে বললো! কিভাবে রে?
বোন : আর বলিস না! একজনের ২০ আরেক জনের ৩০।
মহিউদ্দিন মুকুল ও মেহেদী হাসান
হাজীগঞ্জ মডেল কলেজ, চাঁদপুর

SHARE

Leave a Reply