Home কুরআন ও হাদিসের আলো হাদীসের আলো কুড়িয়ে পাওয়া আম

কুড়িয়ে পাওয়া আম

স্কুল থেকে বাসায় পৌঁছতে না পৌঁছতেই শুরু হলো প্রচন্ড ঝড়ো-বাতাস। গ্রামের আঁকাবাঁকা পথের দুই পাশে দাঁড়িয়ে থাকা গাছগুলো যেন ভেঙে পড়বে লাবিবের মাথায়। প্রচন্ড ভয় কাজ করছে তার ভেতরে। কারণ এ ঝড় সাধারণ কোনো ঝড় নয়। কালবোশেখি ঝড়। ইতঃপূর্বে কালবোশেখি ঝড়ে অনেকের ঘরবাড়ি উড়ে যেতেও দেখেছে সে। তাই দেরি না করে সে দ্রুতগতিতে হাঁটতে শুরু করল।
কিন্তু কিছু দূর সামনে এগোতেই তার চোখ দুটো বড় হয়ে উঠল। চারদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে কাঁচা কাঁচা আম। ঝড়ের ভয়াবহতা ভুলে সে তখন তা উপভোগ করতে শুরু করল। দু’হাত ভরে আম কুড়াচ্ছে আর গুনগুন করে গেয়ে উঠছে
‘ঝড় এলো, এলো ঝড়/আম পড় আম পড়/
কাঁচা আম ডাঁসা আম/টক টক মিষ্টি…
এই যা- এলো বুঝি বৃষ্টি!’

স্কুল-ব্যাগ কাঁচা আমে পূর্ণ করে অবশেষে বাসায় পৌঁছল লাবিব। মাকে ডেকে বলল, দেখ মা কী এনেছি। সে ভেবেছিল মা অনেক খুশি হবেন। আদর করে বলবেন, ‘মিষ্টি ছেলে আমার!’ কিন্তু ঘটল তার বিপরীত ঘটনা। মা সব জেনে বললেন, অন্যের গাছের আম কুড়াতে তোমার একটুও হাত কাঁপেনি? এটাও এক ধরনের চুরি। সুতরাং এগুলো যেখান থেকে এনেছো, সেখানেই রেখে আসতে হবে তোমাকে। যাও! এই ঝড়ের মধ্যেই বের হয়ে যাও! লাবিব হতবাক। সে অবশ্য বিষয়টা জানত না। জানলে ভুলেও এ কাজ করত না সে। মায়ের কথা মতো আমগুলো রেখে আসার পর মা বললেন, শোন বাবা! চুরি করা খুবই জঘন্য অপরাধ। চুরির শাস্তি ভয়াবহ। রাসূল সা: বলেছেন, “আল্লাহর কসম! মুহাম্মদ সা:-এর কন্যা ফাতিমাও যদি চুরি করত, তবে অবশ্যই মুহাম্মদ সা: তার হাত কেটে দিত।” (বুখারি ও মুসলিম)

লাবিব অনুতপ্ত। যদিও তার কাজটা সরাসরি চুরির পর্যায়ে পড়ে না এবং জেনে-শুনে সে এ কাজ করেনি। মায়ের শিক্ষা তাকে যেন নতুন একটি দিগন্তের সন্ধান দিলো। তার মনে পড়ল, পত্রপত্রিকায় প্রায়ই বড় বড় দুর্নীতির খবর ছাপা হয়। দেশের অজ¯টাকা চলে যায় বিভিন্ন উচ্চপদস্থ লোকের পকেটে। কিন্তু তাদের তো কোনো বিচার হয় না। আইনের ফাঁকফোকর দিয়ে পার পেয়ে গেলেও আল্লাহর কাছে তারা পার পাবে কি? অবশ্যই না।
লাবিব ভাবে আর ভাবে, আহা দেশের সব মানুষ যদি তার মায়ের মতোই সৎ ও সচেতন হয়ে যেতেন!
বিলাল হোসাইন নূরী

SHARE

Leave a Reply