Home তোমাদের গল্প আমার প্রিয় বাবা

আমার প্রিয় বাবা

আবুল কাশেম রনি #

r

রাহুল খুব মেধাবী ছাত্র। গত বছর এসএসসি পরীক্ষা সম্পন্ন করেছে। তার আশা ছিল সে ডাক্তার হবে। ডাক্তার হয়ে গরিব- দুঃখীর সেবা করবে। কিন্তু তার আগে তো রাহুলকে এসএসসি পরীক্ষায় ভালো রেজাল্ট করতে হবে। রাহুল জানে সে এসএসসি পরীক্ষায় এচঅ-৫ পাবে, আর পাবেই না কেন? সে তো ক্লাসের ফার্স্ট বয়। রাহুল তার বাবাকে বলল, বাবা আমি যদি এসএসসি পরীক্ষায় এচঅ-৫ পাই তাহলে আমাকে একটা উপহার দিতে হবে। তার বাবা আবদুর রহমান বললেন, কী উপহার চাও তুমি আমার কাছ থেকে?
একটি বাইক চাই আমি। কিছু দিন পর এসএসসি পরীক্ষার রেজাল্ট বের হলো। সবাই রেজাল্ট দেখতে গেল। রাহুলও দেখতে গেল তার রেজাল্ট। রাহুল দেখলো সে সত্যি সত্যিই এচঅ-৫ পেয়েছ। রাহুল তক্ষনি খুশি হয়ে বাড়ির দিকে ছুটল। বাড়িতে রাহুল তার বাবাকে দেখে বলে উঠল, বাবা আমি এচঅ-৫ পেয়েছি। এবার আমার উপহারটা দাও।
কই আমার বাইকের চাবি? রাহুলের বাবা আবদুর রহমান খুশি হয়ে বললেন, তোমার উপহার তোমার টেবিলের ওপর আমি আগেই রেখে দিয়েছি। তখন রাহুল খুশি হয়ে ছুটল টেবিলের দিকে। রাহুল সত্যি সত্যিই দেখতে পেল টেবিলের ওপর রাখা একটি বাক্স! রাহুল তো মহা খুশি, কিন্তু রাহুল বাক্সটি খুলে দেখল বাক্সের ভেতরে একটা কুরআন মাজিদ। রাহুল বাক্সটি বন্ধ করে কেঁদে ফেলল।
অনেক দিন পর। রাহুল বিলেত গেছে পড়তে। হঠাৎ একদিন আতিকের সাথে রাহুলের দেখা। আতিক রাহুলকে দেখে অবাক। তাদের দুইজনের মধ্যে অনেক কথা হলো। এক পর্যায়ে আতিক বলল, রাহুল তোর বাবা খুব অসুস্থ, যা একবার তোর বাবাকে দেখে আয়। রাহুল বিলেত আসার পর বাবার সাথে যোগাযোগ একরকম বিচ্ছিন্নই করে রেখেছে। ছোটবেলায় তার বাইক কেনার আবদার তার বাবা মিটিয়েছিলেন কুরআন কিনে দিয়ে। সেই থেকে চাপা একটা রাগ তার বাবার প্রতি এখনও রাহুল পোষণ করে।
কিছু দিন পর হঠাৎ রাহুলের গ্রামের বাড়ি থেকে তার চাচা আর করিম ফোন করে বলল, রাহুল তোমার বাবা আর বেঁচে নেই। তোমার বাবা মারা গেছেন। রাহুল অনেক কাঁদল। রাহুল বিলেত থেকে তার গ্রামে গিয়ে পৌঁছল। বাড়িতে গিয়ে রাহুল তার বাবার কবরের কাছে গেল। হঠাৎ তার মনে হলো তার বাবার রেখে যাওয়া বাক্সের ভেতরে এ কুরআনখানার কথা। রাহুলের মনে তখন আগ্রহ সৃষ্টি হলো তার বাবার কবরের কাছে কুরআনখানা পড়তে। রাহুল তখনই টেবিলের কাছে গিয়ে দেখল ঐ বাক্সটি। রাহুল বাক্সটি খুলে কুরআনখানা হাতে নিলো। রাহুল তখন বাক্সের ভেতরে কুরআনখানার নিচে দেখল একটি চিঠির খাম। রাহুল খামটি হাতে নিলো এবং খামটি খুলল। খামের ভেতরে রাহুল দেখতে পেল একটি চাবি আর একখানা চিঠি। সে চিঠিতে লেখা ছিল তোমার বাইকটি বারান্দায় এবং এই চাবিটি তোমার বাইকের চাবি। রাহুল তখন বারান্দায় গিয়ে দেখল বাজারের সে বাইক তার বাবা তার জন্য কিনে রেখে দিয়েছেন। বাইকটি দেখে রাহুল কাঁদতে লাগল। তার বাবার কাছে যে সে ক্ষমা চাইবে তা আর তার কপালে জুটল না।

SHARE

Leave a Reply