Home কুরআন ও হাদিসের আলো হাদীসের আলো বনি আদমের জন্য কিয়ামতের দিন পাঁচটি প্রশ্ন

বনি আদমের জন্য কিয়ামতের দিন পাঁচটি প্রশ্ন

হজরত আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা) নবী করিম (সা) থেকে বর্ণনা করেন, তিনি বলেছেন, (কিয়ামতের দিন) মানুষের পা একবিন্দু নড়তে পারবে না, যতক্ষণ পর্যন্ত তার নিকট এই পাঁচটি বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা না হবে ১. নিজের জীবনকাল সে কোন কাজে অতিবাহিত করেছে? ২. যৌবনের শক্তি-সামর্থ্য কোথায় ব্যয় করেছে? ৩. ধন-সম্পদ কোথা থেকে উপার্জন করেছে? ৪. কোথায় তা ব্যয় করেছে? ৫. এবং সে (দ্বীনের) যতটুকু জ্ঞানার্জন করেছে সে অনুযায়ী কতটুকু আমল করেছে?
(তিরমিজি শরিফ)

প্রিয় বন্ধুরা, শরতের এই সময়টাতে আশা করি তোমরা ভালোই আছ। আজকে তোমাদের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ হাদিসের আলোচনা নিয়ে এসেছি। মূলত মানবজীবনের মৌলিক বিষয়গুলো নিয়েই অত্র হাদিসের অবতারণা করা হয়েছে। তা হলো আমি মানুষ হিসেবে আমার সারাটা জীবন কোন কাজে ব্যয় করেছি? এটি হলো প্রথম প্রশ্ন। অর্থাৎ আল্লাহ আমার জীবনের প্রতিটি সেকেন্ড সময়ের হিসাব নেবেন। সুতরাং আমাদের ছোটবেলা থেকেই প্রতিটি মুহূর্ত সময়কে ভালো এবং গঠনমূলক কাজে নিয়োজিত করার অভ্যাস গড়তে হবে।
দ্বিতীয় প্রশ্নটি হলোÑ যৌবনের শক্তি সামর্থ্য আমি কোথায় ব্যয় করেছি? প্রিয় বন্ধুরা, এ কথা আমরা ভালোভাবেই জানি যে, মানবজীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময়টি হলো যৌবনকাল। এ সময়ে শরীর ও মন থাকে শক্তিশালী এবং তরতাজা। এ সময় যেকোনো কঠিন কাজ সমাধা করা সম্ভব হয়। এ সময় যেমন ভালো কাজ করা যায় বেশি বেশি, তেমনি যৌবনের তাড়নায় যেকোনো খারাপ পথে খুব সহজেই জড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে খুব বেশি। তাই যৌবনকালের সময়টিকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে হাদিসে বলা হয়েছে।
তৃতীয় ও চতুর্থ প্রশ্নটি অর্থনীতি সম্পর্কিত। এ বিষয়টিও আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ হলো, হারাম খাদ্যের দ্বারা যে দেহ গঠিত সে দেহ নিয়ে যতই ইবাদত করা হোক না কেন, তা কবুল হবে না মর্মে হাদিস ঘোষণা করা হয়েছে। অর্থাৎ আমাদের সবচেয়ে গুরুত্ব দিতে হবে হালাল রিজিক অন্বেষেণ করার প্রতি, তাতে যতই কষ্ট হোক না কেন। আর হালাল উপার্জন করলেই হবে না, তা হালাল এবং বৈধ খাতেই ব্যয় করতে হবে। অন্যায় কিংবা পাপের কাজে তা ব্যয় করা যাবে না।
পঞ্চম প্রশ্ন হলো অর্জিত জ্ঞান অনুযায়ী কতটুকু আমল করা হয়েছে। অর্থাৎ জ্ঞান অর্জন করলেই হবে না বরং তাকে ভালো কাজে বাস্তবায়ন করার জন্য লাগাতে হবে।
সুতরাং প্রিয় বন্ধুরা, এসো আমরা ইহকালে শান্তি এবং পরকালীন মুক্তির লক্ষ্যে হাদিসে উল্লিখিত পাঁচটি বিষয়ের আলোকে নিজেদের জীবনকে ঢেলে সাজাই এবং জান্নাতে যাওয়ার পথকে সুগম করি। আল্লাহ আমাদের সকলকে হাদিসের আলোকে জীবন গঠন করার তাওফিক দান করুন। আমিন।
মোহাম্মদ ইয়াসীন আলী

SHARE

3 COMMENTS

  1. মে মাসের অন্যান্যে লেখাগুলো দিচ্ছেননা যে। অধীর আগ্রহে বসে আছি।

Leave a Reply