Home হাসির বাকসো হাসির বাকসো

হাসির বাকসো

Bakshoরাফি : জানিস, আমাদের কম্পিউটারের স্পিকারটা না নষ্ট হয়ে গেছে। গান শুনতে পারছি না। তাই আজ তোদের কম্পিউটারে গান শুনবো।
আরমান : গান শুনবি কী করে?
রাফি : কেন, তোদের স্পিকার নেই?
আরমান : আমাদের কী করে স্পিকার থাকবে? স্পিকার তো থাকে সংসদ ভবনে!
সংগ্রহে : ইনতেসিয়া মীম
বদরুন্নেসা আইডিয়াল স্কুল, নারায়ণগঞ্জ

বিজ্ঞানী এডিসন চশমা ব্যবহার করতেন। একদিন তিনি ভুলক্রমে চশমা বাসায় রেখে বাজারে চুল কাটাতে যান। এমন সময় তার একটি পত্র এলো। তখন তিনি নাপিতকে বললেন ভাই, আপনি এটা পড়ে দিন তো। তখন নাপিত বলল : ভাই, আপনি যেমন মূর্খ আমিও তেমনি মূর্খ।
সংগ্রহে : আল-আমিন
বরিশাল সদর
হাসান : আচ্ছা হাসিব, বলতো সবচেয়ে হাসিখুশি প্রাণী কোন্টা?
হাসিব : কোন্টা?
হাসান : হাতি। হাতি হচ্ছে সবচেয়ে হাসিখুশি প্রাণী।
হাসিব : কেন, হাতি কেন সবচেয়ে হাসিখুশি প্রাণী?
হাসান : কেন, দেখ না, হাতি সব সময় দাঁত বের করে থাকে। …তাই হাতি সবচেয়ে হাসিখুশি প্রাণী।
সংগ্রহে : মাসুম বেপারী
মাতুয়াইল, যাত্রাবাড়ী, ঢাকা

পুলিশ ও আসামীর কথোপকথন
পুলিশ : কাল সকাল ৭টায় তোমার ফাঁসি।
আসামী : হা… হা… হা…
পুলিশ : ফাঁসির কথা শুনে তুমি হাসছো যে!
আসামী : হাসবো না! আমি তো ঘুম থেকে উঠি সকাল ১০টায়।
সংগ্রহে : শহিদুল ইসলাম কৌশিক
রামগতি, লক্ষ্মীপুর

একদিন মোটরসাইকেল চড়ে যাচ্ছিল দুই বন্ধু। তো যে বন্ধুটি মোটরসাইকেল চালাচ্ছিল, সে এতো জোরে চালাচ্ছিল যে অন্য বন্ধুটি ভয়েই শেষ। শেষমেষ আর না পেরে বলল, দোস্ত, একটু আস্তে চালা। ভয় লাগছে তো!
তখন চালক বন্ধু বলল, ভয় লাগলে এক কাজ কর, আমার মতো চোখ বন্ধ করে রাখ!
সংগ্রহে : সাকিব আহমেদ
শহীদ অলি হাইস্কুল, ঢাকা

SHARE

3 COMMENTS

Leave a Reply to "Md abu rayhan Cancel reply