Home নিয়মিত খোলা-ডাক খোলা ডাক ফেব্রয়ারী ১৪

খোলা ডাক ফেব্রয়ারী ১৪

Khola-Dakআলোর মশাল
কিশোরকণ্ঠের আলোর মশালের মাধ্যমে জীবনের সব অন্ধকার কাটিয়ে ওঠা যায়। একজন মানুষকে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার সকল জ্ঞান এতে রয়েছে। এর লেখাগুলো অনুসরণ করে বাস্তব জীবনকে সৌন্দর্যময় করা সম্ভব। তাই আমাদের সকলের উচিত প্রতিটি কিশোরের কাছে এ মশাল তুলে দিয়ে আলোর পথ দেখিয়ে দেয়া।
মো: আরিফুল ইসলাম আরিফ
মিরসরাই, চট্টগ্রাম

একটি অপরূপ সংখ্যা
আমি দেশের সর্বাধিক প্রচারিত শিশু-কিশোরদের মাসিক পত্রিকা নুতন কিশোরকণ্ঠের সাথে পরিচিত ২০১২ সালের এপ্রিলে। সেই থেকে কিশোরকণ্ঠের প্রতিটি বিভাগই পড়ি। নভেম্বর সংখ্যাটিও ভালো লাগলো। হেমন্তের সোনালি প্রচ্ছদ দেখেই বোঝা যায় এটি যে হেমন্তের পরম পাওয়া। প্রতিটি বিভাগই ভালো লাগলোÑ বিজ্ঞান জগৎ, সায়েন্স ফিকশন, খেলার চমক, কিশোর উপন্যাস ও ছড়া কবিতাসহ প্রতিটি লেখাই মন কেড়েছে। এমন একটি অপরূপ সংখ্যা উপহার দেয়ার জন্য কিশোরকণ্ঠের সাথে সম্পৃক্ত সকলকে জানাই মন থেকে প্রাণঢালা শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।
মুহা: উবাইদুল্লাহ
আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ

প্রিয় পত্রিকা
যারা লেখাপড়া করে তারা বিভিন্ন বইও পড়ে। অন্য বইয়ের মধ্যে সকলেরই একটি প্রিয় বই থাকে। আর আমার প্রিয় বই হচ্ছে কিশোরকণ্ঠ। আমি যখন ক্লাস টুয়ে পড়ি তখন আমার কাকা নিজেই এজেন্ট ছিলেন। প্রতি মাসে আমি একটি করে নিতাম। তখন শুধু গল্প, হাসির বাকসো, আর কার্টুন কমিকস পড়তাম। কিন্তু আস্তে আস্তে আমি সব পড়া শুরু করলাম। আর কখন থেকে যে এটা আমার মনের ভেতর প্রবেশ করেছে তা আমি নিজেও জানি না। পত্রিকা যদি আসতে দেরি হয় তবে আমি বারবার তার কাছে খবর নেই। এর সবকিছু আমার খুব প্রিয়। এখানে শুধু গল্প নয়, সবই আছে। তাই এটিই আমার প্রিয় পত্রিকা
খান আশরাফুল
বেনেগাতি, বাগেরহাট
মেধা বিকাশের মাধ্যম
মাসিক নতুন কিশোরকণ্ঠ একটি ছাত্রের চেতনাহীন মেধাকে বিকশিত করে জাতির সামনে তুলে ধরে। একটি ছাত্রকে পাঠ্যপুস্তকের প্রতি আকৃষ্ট করার পাশাপাশি কবিতা, গল্প, উপন্যাস, ছড়া ইত্যাদি পড়তে ও লিখতে সাহায্য করে যা মেধা বিকাশের অন্যতম হাতিয়ার। তাই আমি কিশোরকণ্ঠের প্রতি চিরদিন কৃতজ্ঞ।
ফুয়াদ হাসান (মাহি)
ভোলা সরকারি বালক উচ্চবিদ্যালয়

প্রিয় পত্রিকা
কিশোরকণ্ঠ আমার সবচেয়ে প্রিয় পত্রিকা। বাংলাদেশে, এমনকি সারা বিশ্বের এর মতো দ্বিতীয়টি খুঁজে পাওয়া বিরল। এর সহজ সরল বাক্য চয়ন, অসাধারণ রচনা, জ্ঞান- গরিমায় পূর্ণ প্রত্যেকটি বিভাগ আমার কাছে খুব প্রিয়। যে কেউ এটি পড়ে মুগ্ধ হবে এবং এর আলোকে নিজের জীবনের পথপ্রদর্শক হিসেবে মানিয়ে নিতে পারবে। এটি জ্ঞানের আলো, জীবন গঠনে সহযোগী, আমার আদর্শ। কিশোরকণ্ঠ আরও এগিয়ে যাক, উন্নতি ও সমৃদ্ধ হোক।
শেখ মুহাম্মদ ওয়ালিউর রহমান ফিহাদ
খিরকিনী, নবাবগঞ্জ, দিনাজপুর

স্বপ্নের সংখ্যা
কিশোরকণ্ঠ নভেম্বর সংখ্যাটি ছিল আমার স্বপ্নের সংখ্যা। কারণ এ সংখ্যায় আমার জীবনের প্রথম কবিতা ছাপা হয। নভেম্বর সংখ্যাটি পেয়েই আমি পড়তে শুরু করি আর আমি দেখতে পাই আমার ছড়াটি। আমি আমার নিজের চোখকে বিশ্বাস করতে পারছিলাম না। নভেম্বর সংখ্যাটি পেয়ে আমি যেন হাতে চাঁদ পেলাম।
নুর হুসাইন খন্দকার
চারঘাট, রাজশাহী

মনের জানালা
কিশোরকণ্ঠ এমন এক মায়াবী কণ্ঠ যে কিশোরকণ্ঠ আমাকে ভুলে গেলেও আমি তাকে ভুলতে পারব না এই হাজার বছরেও। এই মায়াবী কণ্ঠ এ যে আমার মনের জানালা। কারণ এখানে আমার মনের অফুরন্ত কথা মাসে মাসে বলে যাচ্ছি। আমি এই মাসে কিশোরকণ্ঠ হাতে নিয়ে বুক জুড়ানো কান্নায় ভেঙে পড়লাম কেননা এই কঠিন মুহূর্তেও ক্ষণিকের জন্য আমাদের এই নয়নকণ্ঠ দেরি করে না। আমার মন-প্রাণ উজাড় করে দিলাম। তুমি এভাবেই দিয়ে যাও জাগ্রত তারুণ্যের মাঝে জ্ঞানের সাগর যা দিয়ে আমরা একদিন এই বিশ্বকে জয় করব এ আমাদের পণ।
মো: সেলিম মিয়া, ভিটিপাড়া, কাপাসিয়া, গাজীপুর

আকাশে মেঘ যেমন
বৈশাখ মাসে যেমন কৃষকরা আকাশের দিকে তাকিয়ে থাকেন কখন বৃষ্টি নামে, আমিও তেমনি তাকিয়ে থাকি পোস্ট অফিসের দিকে। কখন আমায় বলবে পিয়ন, আসছে কিশোরকণ্ঠ। আমি প্রতি মাসে কিশোরকণ্ঠ পড়ি। কিশোরকণ্ঠ হাতে নিয়ে আগে দেখে নিই। বলতে পার বা শব্দধাঁধায় আমার নাম এলো কি না, যদি দেখি এসেছে তাহলে আমার মন খুশিতে ভরে ওঠে। তা ছাড়া আমার কাছে খুব প্রিয় হলো বিজ্ঞান জগৎ, সায়েন্স ফিকশন ও জানার আছে অনেক কিছু। কিশোরকণ্ঠ জ্ঞানের জগতের সেরা। ও এই মাসের সায়েন্স ফিকশন কিন্তু খুব ভালো হয়েছে।
মো: হাবিবুল্লাহ
বারুই পাড়া ফাজিল মাদরাসা, বাগেরহাট

ধন্য তুমি
আমি দুই বছর ধরে নতুন কিশোরকণ্ঠ নিয়মিত পড়ছি এবং নিয়মিতভাবেই লেখালেখি করছি। এই অল্প সময়ে আমি নতুন কিশোরকণ্ঠ পড়ে যা পেয়েছি তা কখনেই অস্বীকার করতে পারবো না। বিশেষ করে এই পত্রিকার বেশির ভাগ বিভাগেই লেখালেখির সুযোগ থাকায় যে কেউই তার জ্ঞানের ভা-ারকে সমৃদ্ধ করতে পারছে। পারছে নিজের ভেতরে লালিত সুপ্ত প্রতিভার বিকাশ ঘটাতে। যা সচরাচর অন্যান্য পত্রিকার মাধ্যমে সম্ভব নয়। এ ছাড়াও কুরআন ও হাদিসের আলোকে জীবন যাপনের জন্য প্রতি সংখ্যায় যে সুন্দর কথামালা ছাপা হয় তা যে কারোর উপকারে আসতে পারে। সে পারে এই কথামালার আলোকে নিজের জীবনকে সুন্দর করে সাজাতে।
তাই আমি নির্দ্বিধায় বলতে পারি, হে কিশোরকণ্ঠ! সত্যিই ধন্য তুমি।
তরিকুল ইসলাম শান্ত
নিঝুমদ্বীপ, হাতিয়া, নোয়াখালী

SHARE

Leave a Reply