Home আইটি কর্নার ছবি সম্পাদনার যত সফটওয়্যার

ছবি সম্পাদনার যত সফটওয়্যার

নাজমুল হাসান

তোমরা যারা ফেসবুক ব্যবহার করো, তারা যে কিছুদিন পর পরই নতুন নতুন ছবি আপলোড করো সেটা তো আমরা জানিই। তোমাদের মধ্যে যারা একটু এক্সপার্ট তারা ক্যামেরায় তোলা ছবি সরাসরি আপলোড করো না, বরং তার আগে ছবিতে নানা রকম পরিবর্তন করে নাওÑ কেউ হয়তো রঙটা একটু পাল্টে দাও, কেউ হয়তো ছবির সাথে দুয়েক লাইন লিখে দাও, কেউ হয়তো তিন চারটে ছবিকে একত্র করে নতুন একটি ছবি বানাও। এছাড়াও আছে ছবির সাইজকে ছোট বড় করা। কখনো কখনোতো বড়রাও সাহায্য চায় তাদের ছবিটিকে নির্দিষ্ট আকৃতি এবং মাপে ঠিকঠাক করে দিতে। কেউ চায়, পুরানো ছবিটিকে একটু নতুন অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে। সাধারণত এ সকল কাজ করা হয় অ্যাডোব ফটোশপ নামের সফটওয়্যারে। ফটোশপ অনেকের কাছেই একটি জটিল সফটওয়্যার মনে হয়। তাছাড়া, তোমাদের সাধারণত যে সকল কাজ করতে হয় তার জন্য ফটোশপ ছাড়াও আরও অনেক সফটওয়্যার আছে। আজকের সংখ্যায় আমরা সে সকল বিকল্প কিছু সফটওয়্যারের সাথে তোমাদের পরিচয় করিয়ে দেবো।

GMP

GIMPহলো GNU Image Manipulation Program-এর সংক্ষিপ্ত রূপ। অ্যাডোব ফটোশপ নামের সফটওয়্যারটি সাধারণত পাইরেটেড কপি ব্যবহার করা হয় আমাদের দেশে, কিন্তু গিম্প সফটওয়্যারটি ব্যবহার করতে গেলে পাইরেসির সাহায্য নেয়ার প্রয়োজন হবে না, কারণ সফটওয়্যারটি ফ্রি বিতরণ করা হয়। এই সফটওয়্যারটি দিয়ে সাধারণ পেইন্ট-এর কাজ করা সম্ভব, আবার অনলাইনে ব্যাচ প্রসেসিং করা যায়, বিভিন্ন ধরনের ইমেজে কনভার্ট করা যায়। সফটওয়্যারটি নামিয়ে নিতে হলে http://www.gimp.org সাইটে একবার ঘুরে আসতে হবে তোমাকে। এই সফটওয়্যার ব্যবহারে সমস্যা হলে অনলাইনে বিভিন্ন ফোরামে সাহায্যও পাওয়া যাবে।

Paint.NET

পেইন্ট ডট নেট-ও গিম্পের মতো একটি ফ্রি সফটওয়্যার যা শুধুমাত্র উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের কম্পিউটারে ব্যবহার করা যায়। ফটোশপের মতো এই সফটওয়্যারে লেয়ার ব্যবহার করা যায়, ফলে এই সফটওয়্যারটি ফটোশপ সফটওয়্যারের পূর্বে ব্যবহার করতে পারো। তাহলে ফটোশপ ব্যবহার সহজ হয়ে যাবে। এই সফটওয়্যারের একটি সুবিধা হলো আনলিমিটেড আনডু করার সুযোগ। অর্থাৎ, আনডু করতে করতে একদম শুরুতে ফিরে যাওয়ার সুযোগ থাকে। এছাড়া স্পেশাল ইফেক্ট ব্যবহারের সুযোগ আছে, বিভিন্ন রকম টুলস ব্যবহার করা সম্ভব যার মাধ্যমে কোনো ছবিকে পাল্টে দেয়া সহজ হবে। যদি ব্যবহার করে দেখতে চাও তবে http://www.getpaint.net সাইট থেকে নামিয়ে নাও।
Photoscape

ফটোস্কেপ সফটওয়্যারটিও ফ্রি। এর মাধ্যমে ছবি শুধু এডিট করা যায় না, বিভিন্ন ফোল্ডারে সাজিয়ে রাখা ছবিগুলোও দেখা সম্ভব। একসাথে অনেকগুলো ছবি এডিট করা, এক পেইজে অনেকগুলো ছবি মার্জ করে ফাইনাল ছবি তৈরি করা, অ্যানিমেটেড জিআইএফ ছবি তৈরি, এক সাথে অনেকগুলো ছবির রিনেম করা ইত্যাদি করা সম্ভব। ডাউনলোড করতে হলে http://www.photoscape.org সাইটে চলে যাও এবং ডাউনলোড করে ব্যবহার শুরু করে দাও।

PhotoFiltre

ফটোফিল্টার সফটওয়্যারটি গিম্প বা ফটোশপের তুলনায় বেশ ছোট সফটওয়্যার। ছোটখাটো পরিবর্তন করার জন্য এবং বিভিন্ন রকম ফিল্টার ব্যবহারের জন্য এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করা যেতে পারে। এর টুলবারটি ছোট এবং সহজ, ফলে কাজ করা খুব কঠিন হয় না। ব্যবহার করার আগ্রহ বোধ করলে http://photofiltre.free.fr থেকে ডাউনলোড করে নাও।

বন্ধুরা, ছবি সম্পাদনা করার কতোগুলো সফটওয়্যারের নাম জানিয়ে দিলাম তোমাদের। সেই সাথে অনুরোধ করতে চাইÑ তোমাদের ছবিগুলোকে ভালো কাজে ব্যবহারের জন্য সম্পাদনা করো, মিথ্যা এবং অন্যায়ের পথে যেন এই জ্ঞান ব্যয় না হয় সে ব্যাপারে সতর্ক থেকো। ভালো থেকো, কেমন! পরবর্তী সংখ্যায় দেখা হবে আবার। হ

SHARE

Leave a Reply