Home নিয়মিত খোলা-ডাক খোলা ডাক

খোলা ডাক

আলো আর আলো
প্রাণপ্রিয় কিশোরকণ্ঠ সত্যিই মনমাতানো আলো জ্বেলেছে। কিশোরসমাজ যখন ধ্বংসাত্মক কার্যকলাপে লিপ্ত, ঠিক তখনই কিশোরকণ্ঠ আলো নিয়ে হাজির হলো আমার কাছে। সেদিন থেকে যেন আমি পথ চলতে শিখেছি। কিশোরকণ্ঠ সত্যিই আলো আর আলো।
মো: মনির হোসাইন
কোম্পানীগঞ্জ, নোয়াখালী
বন্ধুর স্পর্শ
দীর্ঘদিন ধরে পড়ে চলেছি প্রিয় পত্রিকা কিশোরকণ্ঠ। প্রতি মাসেই এর মনকাড়া প্রচ্ছদ ও মননশীল রচনায় যেন অনুভব করি পরম বন্ধুর স্পর্শ। যে বন্ধু আমাদেরকে দেয় সঠিক পথনির্দেশনা, জাগায় আশার আলো, আনন্দ দেয় আর প্রেরণা জোগায়। এপ্রিল মাসের সংখ্যাটিও তার বিকল্প ছিল না।
মো: আবুল আসাদ
নারায়ণগঞ্জ
প্রদীপ হাতে
প্রতিকূল পরিবেশে কিশোরকণ্ঠ নিয়ে এসেছে একটি উজ্জ্বল প্রদীপ যা অন্য কোন পত্রিকা পারেনি। এই কিশোরকণ্ঠ পত্রিকা সত্যের সন্ধানী এবং সত্যের প্রদীপ হাতে আমাদের সামনে এসেছে। তাই আমাদের প্রত্যেকের উচিত কিশোরকণ্ঠ মনোযোগ সহকারে অধ্যয়ন করা।
মোহাম্মদ মাহবুব আলম
নড়িয়া, শরীয়তপুর

কল্পনার বাস্তব রূপ
কাঠফাটা রোদে পিপাসার্ত রাখাল যেমন অপেক্ষায় থাকে এক ফোঁটা জল কখন তার গলা দিয়ে নামবে, ঠিক তেমনি আমিও অপেক্ষায় থাকি কখন প্রাণের খোরাক কিশোরকণ্ঠ হাতে আসবে। এপ্রিল সংখ্যাটি একটু দেরিতেই হাতে পেলাম। যখন দেখলাম শব্দধাঁধা বিভাগে আমার নাম এসেছে আমি তো শেষ, পাগল হয়ে গেছি। পাতা উল্টাতে গিয়ে দেখলাম আমার একটা ছড়াও কিশোরকণ্ঠে ছাপানো হয়েছে, যা ছিল আমার কল্পনারও বাইরে। ছাপানোর চাইতে এটা ভেবে আমি মুগ্ধ, হাজার লেখার মাঝে আমার লেখা কিভাবে মনোনীত হলো? সত্যি! কল্পনার বাস্তব রূপ এটা।
রফিকুল ইসলাম রিপন
লক্ষ্মীপুর সদর
সুন্দর পত্রিকা
আমি দীর্ঘ এক বছর ধরে কিশোরকণ্ঠ পত্রিকাটি পাঠ করছি। পত্রিকাটি পড়ে আমি যেসব নিয়মশৃঙ্খলা শিখেছি সেসব নিয়মশৃঙ্খলা আমি আগে কোনো পত্রিকা পড়ে শিখেনি। কিশোরকণ্ঠ আমাকে উন্নতির পথে ঠেলে দেয়। কিশোরকণ্ঠ একটি সুন্দর পত্রিকা। তাই আমি মনে করি, জীবনে নিয়মশৃঙ্খলা শিখতে কিশোরকণ্ঠের বিকল্প নেই এবং বেশি বেশি কিশোরকণ্ঠ পড়তে হবে।
মুক্তাদ্বীরুল মোমেন জিম
পবহাটি, ঝিনাইদহ

অসাধারণ
আম, জাম, কাঁঠাল ইত্যাদি ফলের সমাহার নিয়ে যেমন আমাদের মাঝে গ্রীষ্মকাল উপস্থিত হয়েছে তেমনি এপ্রিল ২০১৩ নববর্ষ সংখ্যাটি আমার কাছে হাজির হয়েছে অনিন্দ্য সুন্দররূপ নিয়ে। সব বিভাগই অত্যন্ত ভালো লেগেছে। খুশির আবেগে পড়া শুরু করলাম। যতই পড়ছি ততই আনন্দ পাচ্ছি। কিছুতেই তৃষ্ণা মিটতে চায় না। এক কথায় কিশোরকণ্ঠ এপ্রিল সংখ্যাটি হয়েছে অসাধারণ। এ সংখ্যার ছড়া কবিতাগুলো হয়েছে খুব মজার। আশা করি এরকমভাবেই চলবে, ইনশাআল্লাহ।
মো: তোফাজ্জল হোসেন
নান্দাইল, ময়মনসিংহ
অভিনন্দন
অভিনন্দন জানাই কিশোরকণ্ঠকে, যা প্রতিনিয়তই লাখো কিশোরের সুপ্ত প্রতিভাকে বিকশিত করছে। এর ছড়া-কবিতা, গল্প, উপন্যাস, সায়েন্স ফিকশন, আইটি, কার্টুন, কুরআনের আলো, হাদীসের আলো, রংতুলি, হাসির বাকসোসহ সবই একজন কিশোর বা কিশোরীর পরিপূর্ণ মেধা ও সৃজনশীলতার বিকাশে বিরাট ভূমিকা রাখে।
মো: ইমরান হোসেন
দেওগ্রাম, কাহালু, বগুড়া

জ্ঞানের ভাণ্ডার
জ্ঞানই আনন্দ, নির্জনতার সঙ্গী এবং জীবনের বন্ধু, যা নিয়মিত কিশোরকণ্ঠ পাঠ করেই শিখলাম। আমার বিশ্বাস, তোমরা যদি নিয়মিত কিশোরকণ্ঠ পাঠ কর, তাহলে জ্ঞান অর্জন করতে সক্ষম হবে। কেননা, কিশোরকণ্ঠ অজানা সকল জ্ঞানকে স্থান দিয়ে পাঠকদের হৃদয়কে জ্ঞানের ভা-ারে পরিণত করেছে।
ফরহাদ হোসেন আরজু
কাশিপুর, সদর, নোয়াখালী

প্রিয় বন্ধু
আজ আমাদের চারপাশে অনেক রঙিন বর্ণের বন্ধু দেখা যায়। যদি বলি এই বন্ধুত্ব বইয়ের সাথে, তাহলে আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে বই হলো পড়ার জিনিসÑ এর সাথে কি বন্ধুত্ব হয়? আমার বিবেচনায় বলব, আমার নিজ পাঠ্যবইয়ের সাথে সম্পর্ক কম হলেও এই প্রিয় বন্ধু কিশোরকণ্ঠের সাথে বন্ধুত্ব হয় ষষ্ঠ শ্রেণী থেকে। আজ দীর্ঘ পাঁচ বছর পেরিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু এই বন্ধুর সাথে আমার কোনো দিন ঝগড়া হয়নি। বরং আরো গভীর হয়ে উঠছে আমাদের প্রিয় বন্ধুত্ব।
মো: আরিফ রহমান রাসেল
কাথরিয়া, বাঁশখালী, চট্টগ্রাম

দুঃসময়ের কাণ্ডারি
কিশোরদের প্রতিভা নিয়ে গঠিত কিশোরকণ্ঠ আজ জনপ্রিয়তার সীমা পেরিয়ে গেছে। এই কিশোর পত্রিকাটির নানা দিক কিশোর মনের দুঃসময়ের অভিনব বন্ধুরূপে আবির্ভূত হয়। চারিদিকের কালো লীলা যখন কিশোর মনকে করছে ধ্বংস তখন এই কিশোরদের বন্ধুই একমাত্র সেই কিশোরদের দুঃসময়ের বন্ধুরূপে কাণ্ডারির ভূমিকা পালন করে থাকে।
মো: তানভীরুল ইসলাম (ফাহিম)
বিএএফ শাহীন কলেজ, চট্টগ্রাম

আশার আলো
আলো ছাড়া এই পৃথিবী অন্ধকারাচ্ছন্ন। আলো যেমন আমাদের পথঘাট চলতে বিভিন্ন ধরনের কাজ করতে সাহায্য করে তেমনি কিশোরকণ্ঠ আমাদেরকে মনুষ্যত্ব তথা মানুষ হিসেবে কাজ করতে সাহায্য করে। কিশোরকণ্ঠ আমাদেরকে আলোর পথ দেখায়। আর এই পথ দিয়ে গিয়েই আমরা উন্নতির স্বর্ণশিখরে পৌঁছতে পারি। পারি উন্নত জীবন-যাপন করতে।
মো: জোবায়ের হোসেন
লেবুডাংগা উচ্চবিদ্যালয়

SHARE

Leave a Reply