Home কুরআন ও হাদিসের আলো কুরআনের আলো আল্লাহ যাকে ইচ্ছা বিজয় দান করেন

আল্লাহ যাকে ইচ্ছা বিজয় দান করেন

“তিনি আরো একটি বিজয় দেবেন, যা তোমরা পছন্দ কর। আল্লাহতায়ালার পক্ষা থেকে সাহায্য এবং বিজয় আসন্ন। মুমিনদেরকে এর সুসংবাদ দান করেন।”
(সূরা সফ, আয়াত : ১৩

সুপ্রিয়া বন্ধুরা,
স্বাধীনতা সংগ্রামে বিজয় অর্জন মানুষের প্রতি মহান স্রষ্টা আল্লাহতায়ালার এক মস্ত বড় দান। আল্লাহ এ এক মহা নিয়ামত। বিপুল দু:খ-কষ্ট, অপরিসীম ত্যাগ ও তিতিক্ষার বিনিময়ে আমরা পেয়েছি এই মহান বিজয়। বিজয় মূলত বাংলাদেশের সমৃদ্ধ উত্তরাধিকারের সার্ববৌম রূপ লাভের প্রতীক। মানুষকে আল্লাহতায়লা স্বাধীন করেই সৃষ্টি করেছেন। মানুষের আসল স্বভাবগত অবস্থা হচ্ছে তার স্বাধীন থাকাএ জন্য মানুষের ওপর একটি করণীয় বা দায়িত্ব করণীয় বা দায়িত্ব অর্পিত হয়। সেটি হচ্ছে এই মহা নিয়ামতের শুকরিয়া আদায় করা। তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা। আর তার রূপ হলো, মানুষের স্রষ্টা ও মানুষকে জীবনের সব ক্ষেত্রে আল্লাহর ওপর ভরসা করা। মানুষে যখন তাঁর এই দায়িত্ব ও করণীয় শাস্তি। দাসত্ব, গোলামি ও পরাধীনতা মূলত মানুষের জন্য শাস্তিদায়ক একটি অবস্থা স্বাধীনতা ও বিজয়ের এই নিয়ামতের কদর, মূল্যায়ন ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ কিভাবে মানুষের পক্ষে সহজে সম্ভম হবে? এ বিষয়ে ইসলামের প্রধান ও মৌলিক শিক্ষা হলো মানুষের প্রকৃত স্বাধীনতা কেবল বাহ্যিক শৃঙ্খলমুক্তির চিত্র কিংবা প্রত্যয় দ্বারা অর্জিত হয় না। দৃশ্যমান ধাপ হচ্ছে রাব্বুল আলামিনের ইবাদত করা। মানুষের স্রষ্টা আল্লাহর আবদরূপে যখন মানুষ গড়ে উঠবে, যখন আল্লাহর আহামের সে গোলামি করবে তখনই সে সঠিক অর্থে স্বাধীন হবে এবং সার্বিক স্বাধীনতার সে স্বাদ পাবে। আর তখনই আল্লাহ তায়ালা তাকে বিজয় দান করবেন।
ব্যক্তি, সমাজ, রাষ্ট্র এবং ব্যক্তির অন্তর ও বাহ্যিক জগতের সব পর্যায়ে ইসলাম স্বাধীনতার নিশান উড্ডীন রেখেছে। সে স্বাধীনতার স্রষ্টার আনুগত্য এবং অপরের হক ক্ষুণœ না করার পর্বটিকেও উজ্জ্বল রাখাকে স্বাধীনতার স্রষ্টার আনুগত্য এবং অপরের হক ক্ষুণœ না কারার পর্বটিকেও উজ্জ্বল রাখাকে স্বাধীনতার অংশ সাব্যস্ত করা হয়েছে। আল্লাহতায়লা যখন কোন ভূখণ্ড কাউকে বা কোন জাতিকে দান করেন এবং তাকে বিজয়ী করেন, তখন সে ভুখণ্ড প্রাপকদের উচিত তার জন্য শুকরিয়া আদায় করা। আর সে শুকরিয়া আদায়ের রূপ হলো, সমাজের সর্বস্তরে ইনসাফ করা। বিজয়ের সফলতা তখনই সার্থক হবে যখন এই স্বাধীন রাষ্ট্র পরিণত হবে একটি সমৃদ্ধশীল রাষ্ট্রে । আর এই কাঙ্খিত লক্ষ্য অর্জিত হলে বিবসের স্বপ্ন সঠিকভাবে বাস্তবায়নের পথ প্রশস্ত হবে।

প্রিয় বন্ধুরা,
এসো বিজয়ের এই মাসে আমরা শপথ করি দেশকে সকল প্রকার শৃঙ্খল থেকে মুক্ত করার এবং এ ক্ষেত্রে ভরসা করি একমাত্র আল্লাহর ওপর।

SHARE

1 COMMENT

  1. “এসো বিজয়ের এই মাসে আমরা শপথ করি দেশকে সকল প্রকার শৃঙ্খল থেকে মুক্ত করার এবং এ ক্ষেত্রে ভরসা করি একমাত্র আল্লাহর ওপর।”
    …………..আল্লাহ আমাদের তাওফিক দিন। আমীন।

Leave a Reply