Home কুরআন ও হাদিসের আলো হাদীসের আলো রাত ও দিন পরস্পরের অনুগামী

রাত ও দিন পরস্পরের অনুগামী

হযরত আবু মুসা (রা) থেকে বর্নিত আছে, তিনি বলেন, “রাসূলুল্লাহ (সা) পাঁচটি বাক্য নিয়ে আমাদের সামনে দণ্ডায়মান হলেন; অতঃপর বললেন, (১) নিশ্চয়ই আল্লাহতায়ালা নিন্দ্রা যান না এবং তাঁর নিন্দ্রার প্রয়োজনও হয় না। (২) আমলের মাপকাঠি হ্রাস ও বৃদ্ধি করেন। (৩) রাতের আমলগুলো দিনের আমল শুরু হওয়ার পূর্বেই (আল্লাহর নিকট) পৌঁছে যায়। (৪) দিনের আমলগুলো রাতের আমল শুরু হওয়ার পূর্বেই (আল্লাহর নিকট) পৌঁছানো হয়। (৫) তিনি নূরের পর্দা দ্বারা বেষ্টিত। যদি তিনি তা উন্মোচিত করেন, তাহলে তাঁর চেহারার জোতি সৃষ্টির প্রতি যতদূর পর্যন্ত বিস্তৃত হবে, তা জ্বালিয়ে দেবে।” (সহীহ মুসলিম)

সুপ্রিয় বন্ধুরা,
অধিকাংশ হাদিসের বর্ণনা এবং সর্বাধিক গ্রহণযোগ্য মত অনুযায়ী আমরা সবাই জানি এ পৃথিবীতে আল্লাহপাক আঠার হাজার মাখলুকাত সৃষ্টি করেছেন। এর সবই আমাদের জন্য তার নিদর্শনস্বরূপ। তাঁর কোন কোন সৃষ্টি আমরা আমাদের আপাতদৃষ্টিতে দেখতে পাই। আবার কোনটি দেখতে পাই না। কিন্তু এ ক্ষেত্রে তাঁর প্রতি বিশ্বাসের কোন ঘাটতি নেই। কারণ আল্লাহপাক আমাদের সৃষ্টিকর্তা। তিনি আমাদেরকে সৃষ্টি করেছেন। আঠার হাজার সৃষ্টির মধ্যে আমরা তাঁর এক প্রকার সৃষ্টি। তাঁর একান্ত অনুগ্রহে আমরা এ পৃথিবীর আলো-বাতাস, পাহাড়-পর্বত, গ্রহ-নক্ষত্র ইত্যাদি দেখতে পাই। সৃষ্টির সেরা জীব হিসেবে তিনি আমাদের মর্যাদা দিয়েছেন। আর বাকি সবই সৃষ্টি করেছেন আমাদের (মানুষের) কল্যাণের জন্য। এ ব্যাপারে তিনি নিজেই ঘোষণা দিয়েছেন- ‘পৃথিবীর সবকিছু তোমাদের জন্য।’ আল্লাহপাকের পক্ষ থেকে বান্দার জন্য এটি বিশাল নেয়ামত্ এ জন্য আমাদের উচিত তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা। আমার যদি একটু চিন্তার রাজ্যে ঘুরে আসি, তাহলে দেখতে পাবো আল্লাহপাকের অসংখ্য নিয়ামতের মধ্যে রাত ও দিন আমাদের জন্য এক বিশেষ নিয়ামতের স্থান দখল করে আছে। রাত-দিন একটি অন্যটির সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। একটি অন্যটির পরিপূরকও বটে। রাত গ্রহণযোগ্যতা পেতো না দিনের আলো ছাড়া। একটি সাথে দিনও গ্রহণযোগ্য হতো না রাতের অন্ধকার ছাড়া। সুতরাং একটি অন্যটির পরস্পর অনুগামী।
রাত ও দিনের এই আবর্তন আল্লাহতায়ালা এমনি এমনি সৃষ্টি করেননি। বরং এর মধ্যে নিহিত রয়েছে এক নিগূঢ় রহস্য। দিন, মাস, বছরসমূহের গণনা ও হিসাব করা যেত না, যদি না থাকত রাত-দিনের পার্থক্য। এটা আল্লাহপাকের সৃষ্টির এক অনন্য নিদর্শন। আল্লাহতায়ারা নিজেই ঘোষণা করেছেন- ‘আর আমি রাত ও দিনকে দু’টি নিদর্শন বানিয়েছি। অতঃপর নি®প্রভ করে দিয়েছি রাতের নিদর্শন এবং দিনের নিদর্শনকে দেখার উপযোগী করেছি যাতে তোমরা পালনকর্তার অনুগ্রহঅšে¦ষণণ কর।’

প্রিয় বন্ধুরা, এসো আল্লাহপাক আমাদের যে অসংখ্য অনুগ্রহরাজি দিয়েছেন তাঁর শুকরিয়া আদায় করি।

SHARE

Leave a Reply