Home কুরআন ও হাদিসের আলো হাদীসের আলো অসহায় কাজের লোকেদের প্রতি ভালো আচরণ করা কর্তব্য

অসহায় কাজের লোকেদের প্রতি ভালো আচরণ করা কর্তব্য

বিস্মিল্লাহির রাহমানির রাহীম
“হযরত আবু যর গিফারী (রা) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূল (সা) বলেছেন, তোমাদের চাকর-চাকরানী ও দাস-দাসীরা প্রকৃতপক্ষে তোমাদের ভাই। তাদেরকে আল্লাহতায়ালা তোমাদের অধীনস্থ করেছেন। সুতরাং যার ভাইকে তার অধীন করে দিয়েছেন সে যেন তাকে তাই খাওয়ায়, যা সে নিজে খায়। তাকে যেন তাই পরিধান করায় যা সে নিজে পরিধান করে। আর তার সাধ্যের বাইরে যেন কোনো কাজ চাপানো না হয়। একান্ত যদি চাপানো হয় তবে তা সমাধা করার ব্যাপারে তাকে সাহায্য করা উচিত।”
(সহীহ আল বুখারী, ৫৫৯০)

বন্ধুরা, এ হাদিসে রাসূল (সা) বলেন, তোমাদের অধীনস্থ চাকর-চাকরানী, দাস-দাসী অসহায় মানুষগুলোর সাথে ভালো ব্যবহার কর। কারণ, তারাও তোমাদের মতো মানুষ। তাদেরকে তোমাদের ভাই-বোনের মতো মনে কর। তোমাদের সহায়-সম্বল ধন-সম্পদ না থাকলে তোমাদেরকেও তাদের মতো কারো বাসার চাকর-চাকরানী হতে হতো। দু’মুঠো অন্নের জন্য, এক টুকরো কাপড়ের জন্য পরের বাড়ির মালিকের দিকে চেয়ে থাকতে হতো। কিন্তু আল্লাহ তোমাদের সামর্থ্য দিয়েছেন। কাজেই তোমাদের বাসায় কাজের লোক যারা আছে তাদেরকে তোমরা নিজের ভাইবোন মনে করে তাদের প্রতি দয়ার্দ্র আচরণ করবে। আল্লাহই তাদেরকে তোমাদের অধীনস্থ করেছেন তোমাদের পরীক্ষা নেয়ার জন্য। কাজেই তোমরা যা খাবে তাদেরও তা খাওয়াবে। তোমরা যা পরিধান করবে তাদেরও তা পরিধান করাবে। নিজেরা উন্নতমানের খাবার-পানীয় খেয়ে তাদের খোঁজখবর না নিলে আল্লাহর কাছে জাবাবদিহি করতে হবে। আমাদের বাসা-বাড়ির কাজের লোক, পার্শ্ববর্তী অসহায় পথশিশু, দরিদ্র ছেলেমেয়ে, ছাত্র-ছাত্রী, নারী-পুরুষ যারাই আছে তারাও এ বিধানের আওতাভুক্ত। মানবতার মহান বন্ধু হযরত মুহাম্মদ (সা) তাদের প্রতি দায়ালু হয়ে এ কথাও বলেছেন যে, তাদের সাধ্যের বাইরে যাতে কোনো কাজ চাপানো না হয়। একান্ত যদি চাপানো হয় তবে তা সমাধা করার ব্যাপারে তাকে সাহায্য করা উচিত। যাতে সে সহজে দাযিত্ব পালন করতে পারে।
বন্ধুরা, তাহলে ঝটপট সিদ্ধান্ত নিয়ে নাও আসন্ন শীতের আগে খাওয়ার সামগ্রী, পরিধানের বস্ত্র এখন থেকে পরিবারের সাথে আলাপ সাপেক্ষে আরো ভালো করে সরবরাহ করার চেষ্টা করবে। আল্লাহ আমাদেরকে রাসূলের (সা) সকল নির্দেশ মেনে নিয়ে অসহায় চাকর-চাকরানী, ছেলেমেয়েদের প্রতি সহায় হওয়ার তাওফিক দিন। আমিন।

গ্রন্থনা : মিজানুর রহমান

SHARE

Leave a Reply